অবৈধ মোবাইল ফোন কি আসলেই বন্ধ হবে

অবৈধ মোবাইল হ্যান্ডসেটের দিন শেষ! এখন থেকে আর নতুন কোনো অবৈধ সেটে সিমকার্ড চালু হবে না। শুধু ঘোষণা দিয়ে সরকারি কর পরিশোধের পর যে সেট বাজারে আসবে সেটাতেই চালু হবে সিম।

তবে বর্তমানে গ্রাহকের হাতে থাকা অবৈধ সেটে যে সিমকার্ড চলছে, সেটা দিয়ে তিনি চালাতে পারবেন। এই সেটে অন্য কোনো সিম আর চলবে না। বৈধ সেটে যে কোনো সিম চালানো যাবে।

সম্প্রতি এমন একটি সতর্কীকরণ বিজ্ঞপ্তি দেয় বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন-বিটিআরসি। সেই বিজ্ঞপ্তি নিয়ে সৃষ্ট বিভ্রান্তি দূর করতে সংস্থাটি আরো একটি বিজ্ঞপ্তি দিয়েছে।

রবিবার (৪ আগস্ট) দেয়া ওই বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, প্রয়োজনীয় কাগজপত্র দাখিল করে নির্ধারিত পদ্ধতিতে বিদেশ থেকে নিয়ে আসা হ্যান্ডসেট নিবন্ধন করা যাবে।

অবৈধ আমদানির মাধ্যমে রাজস্ব ক্ষতি, চুরি, স্বাস্থ্য ঝুঁকি, নকল হ্যান্ডসেট প্রতিরোধ ও নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে বিটিআরসিতে ন্যাশনাল ইকুইপমেন্ট আইডেন্টিটি রেজিস্ট্রার (এনইআইআর) স্থাপন হওয়ার পর এ সুযোগ হবে।

আগের বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছিল, ০১ আগস্ট থেকে মোবাইল ফোন অপারেটরদের নেটওয়ার্কে সংযুক্ত নকল ও ক্লোন আইএমইআই সংবলিত হ্যান্ডসেটের সংযোগ পরে এনইআইআরের মাধ্যমে বিচ্ছিন্ন করা হবে। তবে ১ আগস্টের আগে নেটওয়ার্কে যুক্ত কোনো হ্যান্ডসেট এর আওতায় পড়বে না।

রোববারের বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, চলতি বছরের ১ আগস্টের আগের সব হ্যান্ডসেট ভবিষ্যতে বিটিআরসিতে স্থাপিতব্য এনইআইআরে নিবন্ধনের সুযোগ পাবে। এরপর শুধুমাত্র বৈধ হ্যান্ডসেট এ সুযোগ পাবে।

এখন বিটিআরসির আইএমইআই ডাটাবেইজে ২০১৮ সাল থেকে আমদানিকৃত বা দেশে উৎপাদিত সব হ্যান্ডসেটের তথ্য সংরক্ষিত আছে। অবৈধ পথে আমদানিকৃত বা বিদেশ থেকে কেনা কোনো হ্যান্ডসেটের তথ্য এ ডাটাবেইজে নেই। মোবাইল ফোন হ্যান্ডসেট কেনার আগে সেটটির আইএমইআই’র সঠিকতা যাচাই করে কেনা এবং ক্রয় রশিদ নেওয়ার জন্য সুপারিশ করেছে বিটিআরসি।

এজন্য মোবাইল হ্যান্ডসেট কেনার আগে মেসেজ অপশনে গিয়ে KYD১৫ ডিজিটের আইএমইআই নম্বর লিখে ১৬০০২ তে পাঠাতে হবে।*০৬# ডায়াল করে হ্যান্ডসেটের আইএমইআই জানা যায়।

বিটিআরসির বিজ্ঞপ্তিতে আরো বলা হয়, এক্ষেত্রে ২০১৮ সালের আগের হ্যান্ডসেটের ক্ষেত্রে ‘ডিভাইসটির আইএমইআই ডাটাবেইজে পাওয়া যায়নি’ বার্তা পাওয়া গেলেও তার মানে হ্যান্ডসেট অবৈধ তা নয়। তবে ১ আগস্ট থেকে পরবর্তী সময়ে কেনা যেসব হ্যান্ডসেটে এ বার্তা পাওয়া যাবে সেগুলো নিশ্চিতভাবে অবৈধ এবং পরবর্তীতে নেটওয়ার্ক থেকে বিচ্ছিন্ন করা হবে। ০১ আগস্ট ২০১৯ তারিখের পূর্বে কেনা অথবা ব্যবহৃত সকল হ্যান্ডসেট ব্যবহার করা যাবে এবং তা নেটওয়ার্ক থেকে বিচ্ছিন্ন করা হবে না।

বিটিআরসির নিয়ম অনুযায়ী, বর্তমানে প্রত্যেক যাত্রী প্রতিটি বোর্ডিং পাস বা সংশ্লিষ্ট ভ্রমণ দলিলের বিপরীতে ৮টি মোবাইল হ্যান্ডসেট বিটিআরসি’র অনাপত্তিপত্র ছাড়া খালাস করতে পারে। তবে এ মোবাইল হ্যান্ডসেটের মধ্যে সর্বোচ্চ দুটি বিনাশুল্কে এবং বাকিগুলোর শুল্ক আদায়ে কাস্টমস কর্তৃপক্ষের সংশ্লিষ্ট আইন বা বিধি প্রযোজ্য হয়।

আরও পড়ুন