আলবেনিয়ায় শক্তিশালী ভূমিকম্পে নিহত অর্ধশতাধিক

এশিয়ার দেশ আলবেনিয়ায় আঘাত হেনেছে শক্তিশালী মাপের ভূমিকম্প। এতে শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত নিহতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে অন্তত অর্ধশতাধিক। তাছাড়া আহত হয়েছেন আরও কমপক্ষে ছয় শতাধিক লোক। মার্কিন ভূতাত্ত্বিক জরিপ সংস্থার (ইউএসজিএস) বরাতে গণমাধ্যম ‘সিএনএন’ জানায়, মঙ্গলবার (২৬ নভেম্বর) স্থানীয় সময় সকালের দিকে ভূমিকম্পটি আঘাত হানে। রিখটার স্কেলে যার মাত্রা ছিল ৬ দশমিক ৪। শক্তিশালী এই কম্পনের উৎপত্তিস্থল ছিল রাজধানী তিরানা থেকে প্রায় ১৩ কিলোমিটার দূরবর্তী বন্দর নগরী ডারেসে। এ দিকে শনিবার (৩০ নভেম্বর) উদ্ধার অভিযান সমাপ্তির ঘোষণা দিয়ে দেশটির প্রধানমন্ত্রী ইদি রামা বলেছেন, ‘আমাদের উদ্ধার কর্মীরা এখন পর্যন্ত অন্তত ৫১টি মরদেহের সন্ধান পেয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে, ধ্বংসস্তূপের নিচে আর কোনো মরদেহ নেই। তাই চলমান উদ্ধার অভিযানটি আনুষ্ঠানিকভাবে সমাপ্ত ঘোষণা করা হলো।’

অপর দিকে শুক্রবার (২৯ নভেম্বর) স্থানীয় প্রশাসনের পক্ষ থেকে পাঠানো বিবৃতিতে বলা হয়েছিল, ভয়াবহ এই ভূমিকম্পের ফলে বিভিন্ন স্থানে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। এতে এখন পর্যন্ত নারী ও শিশুসহ মোট ৪৩টি মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। হতাহতের সংখ্যা বেশি থাকায় সামনে এই নিহতের সংখ্যাও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। শক্তিশালী এই ভূমিকম্পের কারণে আলবেনিয়ার তিনটি প্রধান শহরের সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান আপাতত বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। শহরগুলো হলো- রাজধানী তিরানা, লেঝে এবং ডারেস। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ভিডিওতে দেখা যায়, ভূমিকম্পের ফলে বেশকিছু ভবন ধসে পড়েছে।

আরও পড়ুন