আশুলিয়ার শীর্ষ সন্ত্রাসী গেদুরাজ আটক

অবসরপ্রাপ্ত এক সেনা সার্জেন্টের বাড়িঘর ভাঙচুরের ঘটনায় আশুলিয়ার শীর্ষ সন্ত্রাসী আবদুল আলিম ওরফে যুবরাজ ওরফে গেদুরাজ ওরফে দুধরাজকে আটক করেছে পুলিশ।

সোমবার রাতে আশুলিয়ার শ্রীপুর এলাকার নিজ বাড়ি থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

পুলিশ জানায়, গত ১৬ মে আশুলিয়ার শ্রীপুর এলাকায় সানসিটি আবাসিক এলাকার মধ্যে অবসরপ্রাপ্ত সেনা সার্জেন্ট মো. নজরুল ইসলামের বাড়িঘর ভাঙচুর এবং লুটপাট করে গেদুরাজ ও তার বাহিনী।

ওই ঘটনায় অবসরপ্রাপ্ত ওই সেনাসদস্য নজরুল ইসলাম বাদী হয়ে কাশিমপুর থানায় গেদুরাজসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে একটি মামলা করেন। সোমবার রাতে ওই মামলায় শ্রীপুর এলাকার তার নিজ বাড়ি থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

এলাকাবাসী জানায়, গেদুরাজের বিরুদ্ধে আশুলিয়া ও কাশিমপুর থানাসহ বিভিন্ন থানায় খুন, অপহরণ, চাঁদাবাজি, নারী নির্যাতনসহ অসংখ্য মামলা রয়েছে। এলাকায় তার ভয়ে কেউ কোন ধরণের প্রতিবাদ করতে সাহস পায় না।

সানসিটির প্রজেক্ট অফিসার মোকাদ্দেস আলী জানান, মাঝে মধ্যেই গেদুরাজ ও তার বাহিনী সানসিটির ভেতরে ঢুকে লোকদের মারপিট করে বাড়িঘর ভাঙচুর ও লুটপাট চালায়।

কেউ তার ভয়ে মামলা করতে সাহস পান না। ১৬ মে অবসরপ্রাপ্ত সেনা সার্জেন্ট নজরুল ইসলামের ঘরবাড়ি ভাঙচুর ও লুটপাট করলে তিনি বাদী হয়ে মামলা করেন। ওই মামলায় তাকে গ্রেফতার করায় সানসিটির আবাসিকের লোকজন সন্তোষ প্রকাশ করেন।

এ ব্যাপারে কাশিমপুর থানার উপপরিদর্শক মাসুদ রানা বলেন, অবসরপ্রাপ্ত এক সেনা সার্জেন্টের ঘরবাড়ি ভাঙচুরের ঘটনায় করা মামলায় তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে আরও অনেক মামলা রয়েছে।

 

আরও পড়ুন