কাতার বিশ্বকাপের প্রস্তুতিপর্বে প্রাণ হারিয়েছে সাড়ে ৬ হাজার শ্রমিক, ১০১৮ জনই বাংলাদেশি

কাতার বিশ্বকাপের প্রস্তুতিপর্বের কাজ করতে গিয়ে গত ১০ বছরে (২০১০-২০২০) প্রাণ হারিয়েছে সাড়ে ৬ হাজারের বেশি বিদেশি শ্রমিক। এর মধ্যে ১০১৮ জন বাংলাদেশি শ্রমিকও রয়েছেন।

আজ মঙ্গলবার এ খবর প্রকাশ করেছে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম গার্ডিয়ান। শুধু বাংলাদেশের শ্রমিকই নন,  এই বিশ্বকাপ আয়োজন সফল করে তোলার পেছনে কাজ করতে গিয়ে ভারতের ২ হাজার ৭১১ জন, নেপালের ১ হাজার ৬৪১ জন, পাকিস্তানের ৮২৪ জন এবং শ্রীলঙ্কার ৫৫৭ জন শ্রমিক মারা গেছেন।

কেনিয়া ও ফিলিপাইনসহ বেশ কয়েকটি দেশের শ্রমিকের মৃত্যুর তথ্য এতে অন্তুর্ভূক্ত করা হয়নি। ২০২০ সালের ডিসেম্বরে কাতারে বিদেশি শ্রমিকের মৃত্যুর তথ্যও এতে যোগ করা হয়নি। তাই হতাহতের প্রকৃত সংখ্যা এর চেয়ে বড় বলেও জানিয়েছে গার্ডিয়ান।

 

সরকারি তথ্যসূত্রের বরাত দিয়ে গার্ডিয়ান জানিয়েছে, প্রতি সপ্তাহে দক্ষিণ এশিয়ার পাঁচটি দেশ; বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তান নেপাল ও শ্রীলঙ্কার ১২ জন করে শ্রমিক প্রাণ হারিয়েছেন কাতার বিশ্বকাপের প্রস্তুতিপর্বের কাজ করতে গিয়ে।

২০১০ সালের ডিসেম্বরে কাতার বিশ্বকাপের প্রস্তুতিপর্বের কাজ শুরু হয়। প্রস্তুতিপর্বের অংশ হিসেবে ৭টি স্টেডিয়াম, নতুন সড়ক, হোটেল, পরিবহন ব্যবস্থা, নতুন বিমানবন্দর এবং নতুন একটি শহর নির্মাণসহ বড় বড় প্রজেক্টের কাজ শুরু করে কাতার। ২০২২ সালে কাতার বিশ্বকাপ অনুষ্ঠিত হবে।

 

 

আরও পড়ুন