কানাডা থেকে অনলাইনে কুষ্টিয়ার চিকিৎসা কর্মকান্ডের খোঁজ নিলেন হানিফ এমপি।

হাসিবুর রুবেল কুষ্টিয়া প্রতিনিধিঃ

কানাডা থেকে জুম অ্যাপসে কুষ্টিয়ার সর্বশেষ চিকিৎসা কর্মকান্ডের সার্বিক খবরা খবর নিলেন কুষ্টিয়া-৩ আসনের সংসদ সদস্য মাহবুব উল আলম হানিফ।
সোমবার ২৯ জুন কাংলাদেশ সময় সকাল ৯ টায় তিনি কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজের বেশ কিছু চিকিৎসক, জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মকর্তা, জনপ্রতিনিধি ও রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দের সাথে জুমে মিলিত হন।
সভায় যুক্ত ছিলেন জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান জনাব হাজী রবিউল ইসলাম, জেলা সিভিল সার্জন আনোয়ারুল ইসলাম, কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ্য প্রফেসর এস এম মুস্তানজিদ লোটাস, বর্তমান অধ্যক্ষ আশরাফুল হক, কুষ্টিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আতাউর রহমান আতা, কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের তত্বাবধায়ক ডাক্তার নুরুন্নাহার, আর এম ও তাপস কুমার সরকার, মেডিসিন বিভাগের প্রধান ডাক্তার সালেক মাসুদ ,মেডিসিন বিশেষজ্ঞ মুসা কবির প্রমুখ।
আলোচনায় জেলার বর্তমান স্বাস্থ্য পরিস্থিতি, লকডাউন, করোনা রোগীর সংখ্যা, চিকিৎসা এবং সর্বোপরি করোনায় সেবাদানকারী চিকিৎসক-নার্স এবং অন্যান্য স্বাস্থ্যকর্মীদের সার্বিক বিষয় স্থান পায়।
এ সময় মাহবুব উল আলম হানিফ ডাক্তারদেরকে শুরু থেকে অদ্যাবধি ঝুঁকি নিয়ে কাজ করে যাওয়ার জন্য ধন্যবাদ জানান। হানিফ বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় যুগ্ম সাধারন সম্পাদক বর্তমানে কানাডাতে অবস্থান করছেন।
আলোচনায় কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ্য প্রফেসর এস এম মুস্তানজিদ লোটাসের শহরে চলমান লকডাউন বিশেষ করে জনসংখ্যার আক্রান্তের হারের সাথে এলাকাভিত্তিক যে বড় রকমের লকডাউন নামানো হয়েছে তার প্রেক্ষিতে মানুষের মধ্যে যে মনস্তাত্বিক সংকট সৃষ্টি হয়েছে সে প্রেক্ষিতে লকডাউনের আওতা ছোট করে আনার ব্যাপারে হানিফ একমত পোষণ করেন।
হানিফ এ বিষয়ে এলাকা ছোট করে এন লকডাউন করা যায় কিনা সে বিষয়ে চিন্তা ভাবনা করার জন্য নির্দেশনা দেন।
এ ছাড়াও তিনি রোগীদেরকে উপজেলা পর্যায়ের স্বাস্থ্যকেন্দ্রে চিকিৎসার ব্যাপারে উৎসাহিত করার পরামর্শ দেন। তিনি কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজে চিকিৎসার ব্যাপারে পদক্ষেপ নেওয়ার কথা বলেন। এ বিসয়ে সিভিল সার্জনকে প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দেন।
কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে আই সি ইউ চালু এবং কেন্দ্রিয় অক্সিজেন সরবরাহ চালু করার ব্যাপারে মন্ত্রনালয়ের সংগে কথা হয়েছে বলে জানান এবং তার জন্য প্রয়োজনীয় অবকাঠামো সংস্কারের জন্য গনপুর্ত বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলীকে দ্রুততার সাথে কাজ করার নির্দেশ দেন।
বহির্বিভাগে করোনা রোগীদের অগ্রাধিকার দেয়া এবং আক্রান্ত নয় এমন সাধারন রোগীদের বুঝিয়ে পরে চিকিৎসা দেবার বিষয়ে সবার সাথে একমত পোষণ করেন।
তিনি আহবান জানান তিনি যেখানেই থাকুন জেলার যে কোন সমস্যার বিষয়ে তাকে দ্রুত অবহিত করার আহবান জানান।

 

আরও পড়ুন