জার্মানির সাবেক প্রেসিডেন্টের ছেলেকে হত্যা

বার্লিনে একটি হাসপাতালে বক্তৃতা করার সময় জার্মানির প্রয়াত প্রেসিডেন্ট রিচার্ড ফন ভাইৎসেকারের ছেলে ফ্রিটজ ফন ভাইৎসেকারকে (৫৯) ছুরিকাঘাতে হত্যা করা হয়েছে। স্থানীয় সময় মঙ্গলবার সন্ধ্যা সাতটার দিকে এই ঘটনা ঘটে।

ঘটনার সময় উপস্থিত শ্রোতারা এক ব্যক্তিকে আটক করতে সক্ষম হয়েছে। সিএনএনের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, পুলিশ ওই ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার দেখিয়েছে। ‘ঘাতক’ ব্যক্তিও জার্মান নাগরিক। তাঁর বয়স ৫৭ বছর।

স্থানীয় পুলিশ জানিয়েছে, ওই হামলায় তাদের এক পুলিশ সদস্য গুরুতর আহত হয়েছেন। তবে তিনি শঙ্কামুক্ত।
ঘটনার সময় বার্লিনের শার্লেটনবুর্গ এলাকার শ্লসপার্ক হাসপাতালে ‘লিভারে চর্বি ও তার প্রতিকার’ বিষয়ে বক্তৃতা করছিলেন ফ্রিটজ ফন। এমন সময় শ্রোতাদের মাঝ থেকে একজন উঠে এসে এই হত্যাকাণ্ড ঘটান। ফ্রিটজ ফন ভাইৎসেকার শ্লসপার্ক হাসপাতালের একজন মেডিসিন বিশেষজ্ঞ। শ্লসপার্ক হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ চিকিৎসা শাস্ত্রের নানা বিষয় নিয়ে প্রায় এই ধরনের বক্তৃতার আয়োজন করে থাকে।

মঙ্গলবারের বক্তৃতার সময়ও বেশ কিছু শ্রোতা সেখানে উপস্থিত ছিলেন। বেশ কিছু শ্রোতা ও এক পুলিশ সদস্য ওই আততায়ীকে ঠেকাতে গিয়েছিলেন। কিন্তু তার আগেই ফ্রিটজ ফন ভাইৎসেকার হামলার শিকার হন। হামলা ঠেকাতে গিয়ে ওই পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন। উপস্থিত শ্রোতারা হামলাকারীকে ধরতে সক্ষম হন।

৫৯ বছর বয়স্ক এই সাবেক প্রেসিডেন্টের ছেলের চিকিৎসক হিসেবে বেশ সুনাম রয়েছে। তিনি ইতিপূর্বে ফ্রাইবুর্গ, বোস্টন ও জুরিখে কাজ করবার পর ২০০৫ সালে বার্লিনের শ্লসপার্ক হাসপাতালে যোগ দেন।

বার্লিনের পুলিশ আরও জানিয়েছে, ওই ব্যক্তি কী কারণে এই হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছে তা এখনো পরিষ্কার নয়। স্থানীয় সময় বুধবার তাঁকে বার্লিনের আদালতে নেওয়া হবে।

জার্মানির প্রয়াত প্রেসিডেন্ট রিচার্ড ফন ভাইৎসেকার ১৯৮৪ থেকে ১৯৯৪ সাল পর্যন্ত প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। এর আগে তিনি বার্লিনের মেয়র ছিলেন।

আরও পড়ুন