নিউজিল্যান্ডের ঘুম কেড়ে নিল করোনা

করোনাভাইরাস প্রতিরোধে ব্যাপক সাফল্যের দাবি করেছিল নিউজিল্যান্ড। এ কারণে লকডাউন থেকে প্রায় পুরোপুরি স্বাভাবিক জীবনে ফিরে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছিল দেশটির কর্তৃপক্ষ। কিন্তু এর মধ্যেই ভাইরাসটির ফের সংক্রমণ দেখা দিয়েছে নিউজিল্যান্ডে। এতে ভীষণ চিন্তায় পড়েছে দেশটির সরকার। খবর বিবিসি।

প্রতিবেদনে বলা হয়, টানা তিনদিন সংক্রমণমুক্ত থাকার পর একজন কোভিড-১৯ রোগী শনাক্ত হয়েছে দেশটিতে।

নতুন আক্রান্ত একজন কিশোর। সে অকল্যান্ডের ম্যারিস্ট কলেজের শিক্ষার্থী। কলেজটি করোনা হিট লিস্টে আছে। অন্তত ৮৫ জন রোগীর সঙ্গে ওই কলেজের সম্পর্ক পাওয়া গেছে।

যুক্তরাষ্ট্রের জনস হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের তথ্যানুসারে, নিউজিল্যান্ডে এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ১ হাজার ৪৯৮ জন। এর মধ্যে মারা গেছেন ২১ জন।

গত মাসের শেষের দিকে সংক্রমণ কমে আসায় ‘করোনা যুদ্ধে নিজেদের বিজয়ী’ ঘোষণা করেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী জেসিন্ডা আরডার্ন। চলতি সপ্তাহের বৃহস্পতিবার থেকে লকডাউনের অধিকাংশ বিধিনিষেধ তুলে নেওয়া শুরু করে।

দেশটিতে ইতিমধ্যে লেভেল-টু লকডাউন চলছে। এর মানে দোকানগুলো খুলে গেছে, ১০০ জনের মতো মানুষ একত্রিত হতে পারছে এবং গণপরিবহণ চালু হয়ে গেছে। ক্যাফে, সিনেমা, জিম ও পার্কগুলোও খুলে দেওয়া হয়েছে। সীমিতি আকারে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানগুলোও খুলে গেছে। হাজার হাজার কর্মী কাজে যোগ দিয়েছেন।

এদিকে স্কুল ও বারও খুলে দেয়া হচ্ছে। ১৮ মে থেকে স্কুলগুলো পুনরায় চালু হয়ে যাবে আর ২১ মে থেকে খুলে যাবে বারগুলো।

 

আরও পড়ুন