নীলফামারীতে ব্যাংক কর্মকর্তার আত্মহত্যা

রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংকের নীলফামারীর জলঢাকা উপজেলার বড়ভিটা শাখার ব্যবস্থাপক রবিউল ইসলাম (৫৫) আত্মহত্যা করেছে। বুধবার সকালে জলঢাকা উপজেলার কলেজপাড়ার নিজ বাসার শোয়ার ঘরে সিলিং ফ্যানের সঙ্গে তিনি গলায় দড়ি দিয়ে আত্মহত্যা করেন। তবে তার আত্মহত্যার কারণ সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়া যায়নি। রবিউল ইসলাম জলঢাকা উপজেলার বালাগ্রাম ইউনিয়নের বিজলীডাঙ্গা গ্রামের আবুল হোসেনের ছেলে।

প্রত্যক্ষদর্শীদের মতে প্রতিদিনের মতো ঘটনার দিন সকাল ৬টায় রবিউল ইসলামকে বাড়ির বাহিরে হাটাহাটি ও মোবাইলে কথা বলতেও দেখা যায়। এরপর তিনি বাসায় প্রবেশ করেন। সকাল সাড়ে ৭টার দিকে ব্যাংক কর্মকর্তার বাসার গৃহকর্মী নাস্তা তৈরী করতে এসে দেখেন ওই কর্মকর্তা তার ঘরে গলায় ফাঁস দিয়ে ঝুলে রয়েছে।

এলাকাবাসী জানান, রবিউল ইসলামের স্ত্রী ও দুই সন্তান রয়েছে। বড় মেয়ে একটি প্রাইভেট মেডিকেল কলেজের ছাত্রী আর ছোট ছেলে এবার এইচএসসি পরীক্ষা দেবে। ছোট ছেলের লেখাপড়ার কারনে ব্যাংক কর্মকর্তার স্ত্রী সেই ছেলেকে নিয়ে জেলার সৈয়দপুর শহরে থাকতেন। ব্যাংক কর্মকর্তা জলঢাকার বাসায় একাই থাকতেন।
আরও পড়ুন