পরাজয়ের গ্লানি মোচনে ৭১’ এর পরাজিত শক্তি বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করে

মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরা বলেছেন, বিজয়ের আনন্দ ক্ষণস্থায়ী। পরাজয়ের গ্লানি চিরস্থায়ী। তাই পরাজয়ের গ্লানি মোচন করার জন্য ৭১’ এর পরাজিত শক্তি জাতির পিতাকে হত্যা করে। জাতির পিতা ও বঙ্গবন্ধু পরিবারের সদস্যদের হত্যাকারী, ইতিহাসের জঘন্যতম হত্যাকাণ্ড ১৫ আগস্টের ষড়যন্ত্রকারী, নেপথ্য কারিগর ও পরবর্তীতে হত্যাকারীদের রক্ষাকারী ঘৃণিত বিশ্বাসঘাতকদেরও বিচার করতে হবে।

সোমবার জাতির পিতার ৪৭তম শাহাদতবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে বাংলাদেশ শিশু একাডেমি মিলনায়তনে আয়োজিত আলোচনা সভায় এসব কথা বলেন তিনি।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি আরও বলেন, বঙ্গবন্ধুর প্রথম স্বপ্ন ছিল এদেশের স্বাধীনতা। দ্বিতীয় স্বপ্ন ছিল এদেশের মানুষের মুক্তি। তাই স্বাধীনতা অর্জনের পরপরই তিনি অর্থনৈতিক মুক্তি সংগ্রামের ডাক দেন। সবুজ বিপ্লবের কর্মসূচি শুরু করেন। তখনই বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যা করা হয়। পৃথিবীতে অনেক রাষ্ট্র নায়কদের হত্যা করা হয়েছে, কিন্তু এভাবে পরিবারের সদস্য ও শিশুদের হত্যা করা হয়নি।

 

প্রতিমন্ত্রী ইন্দিরা বলেন, ‘জাতির পিতার কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকার গঠন করে আবারও সোনার বাংলা গড়ার প্রত্যয় নিয়ে কাজ শুরু করেছেন। তিনি প্রতিনিয়ত বঙ্গবন্ধুর নানা সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন করে যাচ্ছেন। তাই আজ বাংলাদেশ বিশ্বে উন্নয়নের রোল মডেল। শোককে শক্তিতে পরিণত করে অপ্রতিরোধ্য গতিতে এগিয়ে চলেছে বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা। দেশ আজ তলাবিহীন ঝুড়ি থেকে রূপান্তরিত হয়েছে আধুনিক প্রযুক্তিনির্ভর অদম্য বাংলাদেশ হিসেবে। শিশুদের জন্য বাস্তবায়িত হচ্ছে বিভিন্ন প্রকল্প ও কার্যক্রম’।

বাংলাদেশ শিশু একাডেমির চেয়ারম্যান লাকী ইনামের সভাপতিত্বে সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মহিলা ও শিশু বিষয়ক সচিব মো. হাসানুজ্জামান কল্লোল। স্বাগত বক্তব্য দেন বাংলাদেশ শিশু একাডেমির মহাপরিচালক মো. শরিফুল ইসলাম।

এদিন সকালে প্রতিমন্ত্রী ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরা শিশুদের নিয়ে শিশু একাডেমি প্রাঙ্গণে স্থাপিত জাতির পিতার প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান।

আরও পড়ুন