পাকিস্তানের গোলাপি বলের প্রস্তাবে বিসিবির অনীহা

সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টটি ফ্লাডলাইটের আলোতে গোলাপি বলে খেলার জন্য বিসিবিকে প্রস্তাব দিয়েছিল পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)। ৫ এপ্রিল করাচিতে সিরিজের দ্বিতীয় বা শেষ টেস্ট খেলবে বাংলাদেশ। তবে তা দিবারাত্রির টেস্ট হবে না বলে জানিয়ে দিলেন বিসিবির প্রধান নির্বাহী নিজামউদ্দিন চৌধুরী। তিনি জানিয়েছেন, ম্যানেজমেন্ট এখন এই চ্যালেঞ্চ নিতে প্রস্তুত নয়। তার কথায়, ‘আমরা আমাদের দলের ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তাদের সাথে কথা বলেছি এবং প্রস্তুতির অভাবে এই মুহূর্তে দিবারাত্রির টেস্ট খেলতে প্রস্তুত নই। বিসিবি তাদের বিষয়টাও বুঝে এবং সবকিছু বিবেচনা করে আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি পাকিস্তানে দিবারাত্রির টেস্ট না খেলার।’

এ দিকে পাকিস্তানের বিপে দুই ম্যাচ সিরিজের প্রথম টেস্ট শেষে দেশে ফিরেছে বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের একাংশ। গতকাল বিকেলে কাতার এয়ারলাইন্সের একটি ফাইটে করে ৪টা ৪০ মিনিটে হজরত শাহজাজাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছান ক্রিকেটাররা। প্রথম দফায় তামিম ইকবাল, মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ, মুমিনুল হক, লিটন দাস-সহ মোট ১২ জন ক্রিকেটার দেশে ফিরেছেন। আজ দলের বাকি সদস্যরা ফিরবেন।

রাওয়ালপিন্ডিতে দুই ম্যাচ সিরিজের প্রথম টেস্টে পাকিস্তানের বিপে ইনিংস ব্যবধানে হেরেছে বাংলাদেশ। ফলাফলটা যে ইতিবাচক হবে না সেটা আগেই বোঝা গিয়েছিল। তবে টাইগারদের টেস্ট খেলার মানসিকতা নিয়ে প্রশ্ন ওঠেছে। রাওয়ালপিন্ডিতে এভাবে টেস্ট হেরে যাওয়ায় হতাশা ব্যক্ত করেছেন প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু, ‘খেলোয়াড়দের অভিজ্ঞতা আছে। কিন্তু মাঠে পারফর্ম করতে পারছে না। আমরা ভালো পারফরম্যান্স আশা করেছিলাম। লংগার ভার্সন ক্রিকেটে আরও মনোযাগ দিয়ে ক্রিকেটারদের খেলতে হবে।’

বিসিবি সভাপতি পাপন বলেছেন, ‘পাকিস্তানে যা হয়েছে, তা সত্যিই দুঃখজনক। বিশ্বকাপ থেকে আসার পর যত খেলা হয়েছে, তার কোনোটাতেই আগের সাথে মিল পাইনি। ক্রিকেটারদের মনোভাব, শরীরী ভাষা, খেলা কোনো কিছুই আগের মতো মনে হয় না।’ সূত্রমতে, টানা ব্যর্থতার কারণে জাতীয় দলে ব্যাপক রদবদল হতে পারে। বদল আসতে পারে নেতৃত্বেও। কোচিং স্টাফ ও ম্যানেজমেন্টেও পরিবর্তনের আভাস মিলেছে। তবে পরিষ্কার করে কিছু বলেননি নাজমুল। দুই-তিন দিন পরই এ নিয়ে আলোচনায় বসে সিদ্ধান্ত নেবে বিসিবি।

নিরাপত্তা নিয়ে উদ্বিগ্নতা এবং নানা বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়ার পর শেষ পর্যন্ত দীর্ঘ ১২ বছর পর পাকিস্তান সফরে যায় বাংলাদেশ। এর আগে ২০০৮ সালে পাকিস্তানের মাটিতে এশিয়া কাপ ও পাঁচ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ খেলেছিল টাইগাররা। এবার তিন ম্যাচ টি-২০ সিরিজ খেলতে প্রথম ধাপে পাকিস্তান সফরে গিয়ে ২-০ ব্যবধানে সিরিজ হারে বাংলাদেশ। এরপর রাওয়ালপিন্ডিতে দুই টেস্ট সিরিজের প্রথমটিতে হারে। বাংলাদেশ তৃতীয় ধাপে পাকিস্তান যাবে এপ্রিলে। ৩ এপ্রিল করাচিতে একমাত্র ওয়ানডে খেলবে দু’দল। এর একদিন পরই সিরিজের শেষ টেস্ট মাঠে গড়াবে একই ভেনুতে।

আরও পড়ুন