প্রস্রাবের সঙ্গে বেরোয় ভাত-মুড়ি!

প্রস্রাবের সঙ্গে খাবারের অংশ বেরিয়ে আসত ২৩ বছরের রফিকুলের। সে ভারতের বর্ধমানের শহর লাগোয়া নেড়োদিঘির বাসিন্দা। গেল মাসে বর্ধমান মেডিকেল কলেজে রফিকুলের দেহে অস্ত্রোপচার করেন ১০ জন চিকিৎসক। প্রায় ২ ঘণ্টার ওই অস্ত্রোপচারের পর ধীরে ধীরে সুস্থ হয়ে উঠেছেন রফিকুল। ভারতীয় সংবাদমাধ্যমগুলো জানিয়েছে, ৮ বছর বয়সে রফিকুলের শরীরের প্রথম ওই উপসর্গ দেখা যায়। তখন থেকেই তার প্রস্রাবের সঙ্গে বেরিয়ে আসত ভাত ও মুড়ি। বয়সের সঙ্গে বাড়তে থাকে উপসর্গ। স্থানীয় এক চিকিৎসকের কাছে যান রফিকুল। রফিকুলের সমস্যার কথা শুনে তাকে মানসিক রোগী বলে চিহ্নিত করেন সেই চিকিৎসক। শুরু হয় মানসিক রোগের চিকিৎসা।

রফিকুলের মা নুরজাহাঁ বিবি বলেন, ভাবতাম ছেলের গ্যাসের সমস্যা আছে। তাই বেশি করে জল খেতে বলতাম। কিন্তু সমস্যার সমাধান হয়নি। উল্টো কেটে গেছে ১৫ বছর। এই সমস্যা নিয়েই সম্প্রতি বর্ধমান মেডিকেল কলেজে চিকিৎসক নরেন্দ্রনাথ মুখোপাধ্যায়ের কাছে যান রফিকুল। গুরুত্ব দিয়ে রফিকুলের সমস্যা শোনেন তিনি। শুরু হয় চিকিৎসা। জানা যায়, বিরল ইউরেট্রো ডিওডিনাল ফিস্টুলা রয়েছে রফিকুলের অন্ত্রে। এই সমস্যায় খাদ্যনালির একাংশের সঙ্গে যুক্ত হয়ে যায় মূত্রনালি। যার ফলে খাবার খেলে অন্ত্র থেকে খাবারের অংশ চলে আসে মূত্রনালিতে। ফলে প্রস্রাবের সঙ্গে বেরোতে থাকে খাবারের টুকরো। এ বিষয়ে চিকিৎসক নরেন্দ্রনাথ মুখোপাধ্যায় বলেন, ইন্টারনেটে খুঁজে দেখা গেছে, গোটা বিশ্বে এর আগে মাত্র ১১ জনের এই উপসর্গ দেখা গেছে। ফলে অস্ত্রোপচার নিয়ে বিশেষ অভিজ্ঞতা কারও নেই। নিজেদেরই সমস্যা সমাধানের রাস্তা খুঁজতে হয়েছে।

আরও পড়ুন