প্রাথমিকের শিক্ষকদের বদলি স্থগিত

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের বদলি কার্যক্রম আপাতত স্থগিত ঘোষণা করেছে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়। করোনাভাইরাস আতঙ্কে বদলে গেছে দেশের মানুষের স্বাভাবিক জীবনযাত্রা। অফিস-আদালত, স্কুল-কলেজ এবং সরকারি-বেসরকারি সব ধরনের প্রতিষ্ঠানে বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হচ্ছে এক ধরনের লকডাউন। এমন পরিস্থিতিতে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারী ও বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের বদলিও স্থগিত করা হয়েছে।

প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর জানিয়েছে, গত বৃহস্পতিবার থেকে অধিদপ্তরের বদলি কার্যক্রম স্থগিত রাখা হয়েছে। করোনা সংকট কেটে গেলে আবারও বদলি শুরু করা হবে।

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক বদলি নীতিমালা অনুযায়ী, বছরের জানুয়ারি থেকে মার্চ পর্যন্ত শিক্ষক বদলি করা হয়। অন্যান্য বছরের মতো এবারও যথাসময়ে সহকারী শিক্ষকদের বদলি আবেদন জমা নেওয়া হলেও বর্তমানে করোনাভাইরাসের কারণে সব বদলি স্থগিত রাখা হয়েছে। এ কারণে বদলিপ্রত্যাশী আবেদনকারী শত শত শিক্ষক অনিশ্চয়তার মধ্যে পড়েছেন।

প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মো. ফসিউল্লাহ বুধবার জানান, মন্ত্রণালয়ের নির্দেশে বাস্তব পরিস্থিতি বিবেচনায় বদলি কার্যক্রম স্থগিত করা হয়েছে। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে বদলি শুরু হবে। তিনি বলেন, যারা বদলির জন্য আবেদন করেছেন, তাদের মধ্যে যারা যাচাই-বাছাইয়ে যোগ্য বলে বিবেচিত হবেন, পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে সেসব শিক্ষককে বদলি করা হবে।

মহাপরিচালক জানান, এরই মধ্যে বেশকিছু শিক্ষকের আবেদন যাচাই-বাছাই করে চূড়ান্ত করে রাখা হয়েছে। বদলি কার্যক্রম শুরু হলে তাদের বদলির নির্দেশ জারি করা হবে। বদলি কার্যক্রম নিয়ে শিক্ষক-কর্মকর্তাদের হতাশ না হওয়ার পরামর্শ দেন তিনি।

আরও পড়ুন