পড়তে বসে ধর্ষণের শিকার

পটুয়াখালীতে মাজেদ ফকির (৫০) নামের এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে তৃতীয় শ্রেণিতে পড়ুয়া শিশু শিক্ষার্থীকে (১০) ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় সদর উপজেলার কিসমত মৌকরন এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় ভুক্তভোগী শিশুটির বাবা বাদী হয়ে অভিযুক্ত মাজেদ ফকিরের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে শিশুটি ঘরে বসে পড়াশোনা করছিল। এ সময় মাজেদ ফকির ঘরে প্রবেশ করে দরজা বন্ধ করে দেয়। এতে শিশুটি ভয়ে চিৎকার দিলে গামছা দিয়ে তার মুখ বেঁধে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। এ সময় ভেতর থেকে দরজা দেয়া দেখে পরিবারের লোকজনের সন্দেহ হয়। পরে ধর্ষক মাজেদ ফকিরকে হাতেনাতে ধরে স্থানীয় মাতব্বরদের হাতে তুলে দেয়া হয়। কিন্তু ওই মাতব্বররা মাজেদের কাছ থেকে পাঁচ হাজার টাকা নিয়ে তাকে পালাতে সহায়তা করে।

শুক্রবার পুলিশের সহায়তায় ভুক্তভোগী শিশুকে পটুয়াখালী ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। শনিবার শিশুটির বাবা বাদী হয়ে পটুয়াখালী সদর থানায় একটি মামলা করেছেন।

এ বিষয়ে পটুয়াখালী সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোস্তাফিজুর রহমান জানান, লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। আসামিকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

আরও পড়ুন