ফেসবুকেও কথা বলতে পারবেন না জাকির নায়েক

ইসলাম ধর্ম প্রচারক জাকির নায়েকের বক্তব্যের ওপর সাময়িক নি’ষেধাজ্ঞা জারি করেছে মালয়েশিয়া সরকার। এমনকি ফেসবুকসহ সব ধরনের সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমেও কথা বলা থেকে বিরত থাকতে বলা হয়েছে তাকে।
মঙ্গলবার মালয়েশিয়ার পুলিশ মহাপরিদর্শক দাতুক সেরি আবদুল হামিদ এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, ‘সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমসহ সব প্ল্যাটফর্ম থেকেই জাকির নায়েককে সাময়িক নি’ষিদ্ধ করা হয়েছে।’ খবর মালয় মেইলের।
প্রতিদবেদনে বলা হয়েছে, সম্প্রতি জাকির নায়েকের বিরুদ্ধে ব’র্ণবাদের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় পুলিশি তদন্ত চলছে। তদন্তে অভিযোগের সত্যতা মিললে তার মালয়েশিয়ায় বসবাসের অনুমতি বা’তিল করা হতে পারে। ইতিমধ্যে মালায়েশিয়ায় যেকোনো ধরনের সমাবেশে তার বক্তব্য দেওয়া নি’ষিদ্ধ করা হয়েছে।

দেশটির পুলিশ মহাপরির্দশক বলেন, ‘কেলানতানের ঘটনা পর যেকোনো ধরনের বক্তব্য দেয়া থেকে জাকির নায়েককে নি’ষিদ্ধ করা হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে যেন আমরা পূর্ণ তদন্ত সম্পন্ন করতে পারি সে লক্ষ্যেই নেওয়া হয়েছে এই সিদ্ধান্ত। সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, এখন প্রত্যেক রাজ্যের পুলিশ প্রধান জাকির নায়েকের বক্তব্যের ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট রাজ্যের বিষয়গুলো নজরে রাখবে।’

তবে এই নি’ষেধাজ্ঞা অস্থায়ী ও সাময়িক বলেও মনে করিয়ে দেন পুলিশ প্রধান। তিনি বলেন, ‘পরিস্থিতি শান্ত করতে এই নির্দেশনা এসেছে। এটি অস্থা’য়ী। তবে পরিস্থিতির যদি পরিবর্তন না হয় তবে এই নিষে’ধাজ্ঞা বহাল থাকবে।

আরও পড়ুন