বিপদসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে তিস্তার পানি

লালমনিরহাটের তিস্তা তীরবর্তীর নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে। কয়েক দিনের ভারি বর্ষণ ও পাহাড়ি ঢলে তিস্তার পানি বিপদসীমার ২১ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। এদিকে হাতিবান্ধা উপজেলার ধুবনী গ্রামের বাঁধ ভেঙ্গে গেছে।

মঙ্গলবার দিবাগত রাত ১২টা থেকে হাতিবান্ধা উপজেলার তিস্তা ব্যারেজ ডালিয়া পয়েন্টে তিস্তার পানি বিপদসীমার ২১ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। এর আগে সোমবার রাত থেকে হঠাৎ তিস্তার পানি প্রবাহ বাড়তে থাকে। মঙ্গলবার বিকেলে বিপদসীমার ১০ সেন্টিমিটার নিচ দিয়ে প্রবাহিত হলেও রাত ১২টা থেকে বিপদসীমা অতিক্রম করে।

তিস্তা ব্যারাজের ডালিয়ার নির্বাহী প্রকৌশলী রবিউল ইসলাম জানান, উজানের পাহাড়ি ঢলে তিস্তার পানি প্রবাহ সোমবার রাত থেকে বাড়তে থাকে। যা মঙ্গলবার রাত ১২টায় বিপদসীমার ২১ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। ব্যারাজ রক্ষার্থে সবগুলো জলকপাট খুলে দেওয়া হয়েছে।

পানি প্রবাহ বেড়ে যাওয়ায় পাটগ্রাম উপজেলার দহগ্রাম, হাতিবান্ধা উপজেলার সানিয়াজান, গড্ডিমারী, সিন্দুর্না, পাটিকাপাড়া, সিংগিমারী, কালীগঞ্জ উপজেলার ভোটমারী, কাকিনা, আদিতমারী উপজেলার মহিষখোচা, পলাশী, সদর উপজেলার খুনিয়াগাছ, রাজপুর, গোকুন্ডা, ইউনিয়নের তিস্তা নদীর তীরবর্তী নিম্নাঞ্চলের প্রায় পাঁচ হাজার পরিবার পানিবন্দি হয়ে পড়েছে।

আরও পড়ুন