বিবাহ বহির্ভূত অনৈতিক সম্পর্কে জড়াচ্ছে শিক্ষার্থীরা (ভিডিও)

খুলনায় বিবাহ বহির্ভূত অনৈতিক সম্পর্কে জড়িয়ে পড়ছে শিক্ষার্থীরা। গেল দুই সপ্তাহে এ ধরনের কয়েকটি ঘটনায় থানায় মামলা হলে উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েছেন অভিভাবকরা। অপরাধ বিশ্লেষকদের মতে, ‘সংস্কৃতির ভারসাম্যহীনতা’ এ ধরনের অপরাধের বড় কারণ। অন্যের সংস্কৃতি, তাদের পোশাক ও জীবন ধারা অনুকরণ করতে গিয়ে আধুনিকতার নামে বিপদগামী হচ্ছেন শিক্ষার্থীরা।

খুলনায় গত ১৭ আগাস্ট বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ষণের অভিযোগে থানায় মামলা করেন নর্থ ওয়েস্টার্ন ইউনিভার্সিটির এক শিক্ষার্থী। এই শিক্ষার্থী নিজেকে অন্তঃসত্ত্বা দাবি করলে পুলিশ একই বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী অভিযুক্ত শিঞ্জন রায়কে গ্রেফতালর করেন।

গেল ১৯ জুন ওই বিশ্ববিদ্যালয়ের আরেক ছাত্রী ধর্ষণের অভিযোগে কোস্টগার্ডে কর্মরত তানজিল ইসলামের বিরুদ্ধে খুলনা থানায় মামলা করেন। এছাড়া গত ১৩ জুলাই খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র পাপ্পু কুমার চারুকলা ইনস্টিটিউটে লাইব্রেরীতে ধর্ষণ করেন আরেক ছাত্রীকে।

গেল দুই সপ্তাহে একের পর এক এ ধরনের ঘটনায় উদ্বিগ্ন অভিভাবকরা।

এ ব্যাপারে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ আবদুল জব্বার বলেন, বাঙালি সংস্কৃতি আছে, যেখানে আছে ভারতীয় সংস্কৃতি, যেখানে আছে মধ্যপ্রাচ্যের সংস্কৃতি, আছে পাশ্চাত্য সংস্কৃতি, এই যে মিক্সড কালচার এর মধ্যে আমরা বসবাস করি। এখান থেকে আমরা আসলে কোনটা গ্রহণ করব আর কোনটা বর্জন করবো এই বোধটি আমরা হারাতে বসেছি।

সামাজিক মূল্যবোধ প্রতিষ্ঠা, পারিবারিকভাবে সন্তানদের নৈতিক শিক্ষায় শিক্ষিত করা ও বিদেশি অপসংস্কৃতি চর্চা বন্ধের মাধ্যমে এধরনের অপরাধ নিয়ন্ত্রণ করা যায় বলে মনে করেন বিশ্লেষকরা।

(দেশের বেসরকারি টেলিভিশন নিউজ টোয়েন্টিফোরের ভিডিও প্রতিবেদন থেকে করা হয়েছে।)

আরও পড়ুন