বিমানবন্দরে ‘ওয়াটার স্যালুট’ পাচ্ছেন টাইগার যুবারা

দেশের ক্রিকেট ইতিহাসের অন্যতম সেরা অর্জন ছিনিয়ে এনেছে টাইগার যুবারা। ইতিহাস গড়ে বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন এখন বাংলাদেশ। আকবর আলির নেতৃত্বাধীন যুব দলকে বরণ করে নিতে থাকছে বিসিবির নানা আয়োজন। আজ দেশে ফিরেই আকবর আলির দল পেতে যাচ্ছেন ওয়াটার ক্যানন স্যালুট। ক্রীড়াঙ্গনের কোন অর্জনে এবারই প্রথম এমন কিছুর নজির গড়তে যাচ্ছে বিসিবি।

প্রাথমিকভাবে সকালে দেশে ফেরার কথা থাকলেও সূচী পিছিয়ে বিকেল ৪টা ৫৫ মিনিটে হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করবে ট্রফি নিয়ে দেশে ফেরা অনূর্ধ্ব-১৯ দলকে বহনকারী বিমান। যাত্রীদের ভোগান্তির কথা চিন্তা করে বিমানবন্দরে খুব বেশি সময় ব্যয় করবে না বিসিবি।

ওয়াটার স্যালুটের মাধ্যমে প্রথম অভ্যর্থনা পাবে আকবর, তামিম, সাকিব, রাকিবুল, শরিফুলসহ কোচিং স্টাফরাও। মূলত বিমানবন্দরে কোন এয়ারলাইন্স ও বিমানের প্রথম ও শেষ যাত্রায় দেওয়া হয় ওয়াটার স্যালুট। বিমানের কোন কর্মকর্তার অবসরের সময়ও দেওয়া হয় এই বিশেষ স্যালুট। কিন্তু ক্রিকেট তথা দেশের ক্রীড়াঙ্গনে এমন নজির প্রথম।

ওয়াটার স্যালুটে অবতরণ করা বিমানের দুই পাশ থেকে অগ্নিনির্বাপক যন্ত্র দিয়ে ছিটানো হয় পানি। অনেকটা বিয়ের গাড়িতে দুই পাশ থেকে ফুল ছিটানোর আদলে সম্মান জানানো হয় সংশ্লিষ্ট ব্যক্তি, কর্তৃপক্ষ কিংবা বিমানকে। এছাড়া বিভিন্ন ফুটবল দলকেও সাফল্য অর্জন শেষে দেশে ফেরার পর এমন অভ্যর্থনা দিতে দেখা যায়। ২০১৮ বিশ্বকাপ জয়ী ফ্রান্স ফুটবল দল, ২০১৬ সালে ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়ন হওয়া পর্তুগালও দেশে ফিরে পেয়েছে ওয়াটার স্যালুট।

আকবর আলির দলকে ওয়াটার স্যালুটের পরই ফুল দিয়ে বরণ করবে বিসিবি। এরপর বিমানবন্দরেই কাটা হবে কেক, সেখান থেকে সোজা বিসিবিতে। বিসিবিতে আজ (১১ ফেব্রুয়ারি) থেকে শুরু হয়েছে আমেজ। যুব দলের ছবি, ব্যানার, ফেস্টুনে ইতোমধ্যে ছেয়ে গেছে বিসিবি ভবনের দেওয়াল। সন্ধ্যা থেকেই জ্বলতে শুরু করেছে তারা বাতিও।

বিসিবিতে ফিরে বিসিবির অন্যান্য আয়োজনের পর সংবাদ সম্মেলন শেষে ঘরে ফিরবে টাইগাররা। ঢাকার বাইরের ক্রিকেটাররা রাত কাটাবেন বিসিবিতেই। যদিও ঢাকার ভেতরে থাকা ক্রিকেটারদের ছেড়ে দেওয়া হবে রাতেই।

আরও পড়ুন