মেয়ের আত্মা শান্তি পেল, বললেন সেই ধর্ষিতা চিকিৎসকের বাবা

এতদিনে যেন তার যন্ত্রণাকাতর মেয়ের আত্মা শান্তি পেল। শুক্রবার সকালে চার অভিযুক্তের এনকাউন্টারে মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়ার পর এই কথা বলেন ভারতের তেলঙ্গানায় ধর্ষিতা চিকিৎসকের বাবা। পুলিশ-প্রশাসনের প্রতি ‘কৃতজ্ঞতা’ জানিয়েছেন তিনি।

তিনি গণমাধ্যমকে বলেন, “আমার মেয়ের মৃত্যুর ১০ দিন পেরিয়ে গেছে। পুলিশ এবং সরকারের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি। আমার মেয়ের আত্মা নিশ্চয় এবার শান্তি পাবে।”

শুক্রবার ভোরে গণধর্ষণ এবং খুনে অভিযুক্ত চারজনকে কড়া প্রহরায় ঘটনাস্থলে নিয়ে যাচ্ছিল পুলিশ। সামসাবাদের ৪৪ নম্বর জাতীয় সড়কের কাছে আন্ডারপাসে ওই ধর্ষিতা চিকিৎসকের অগ্নিদগ্ধ দেহ পাওয়া গিয়েছিল। পুলিশের উদ্দেশ্য ছিল ঘটনার পুনর্নির্মাণ করা। পুলিশের দাবি, ওই সময়ই অভিযুক্ত চার জন পালানোর চেষ্টা করে। পুলিশের অস্ত্র কেড়ে গুলি চালানোরও চেষ্টা করে অভিযুক্তরা। আত্মরক্ষার স্বার্থে বাধ্য হয়ে গুলি ছোঁড়ে পুলিশ।

তাদের উদ্ধার করে নিকটবর্তী হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে চারজনকেই মৃত বলে ঘোষণা করেন চিকিৎসকরা।

সাইবরাবাদের পুলিশ কমিশনার ভিসি সজ্জনা গণমাধ্যমকে বলেন, ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার ভোররাত তিনটা থেকে ভোর ছয়টার মধ্যে। ঘটনাস্থলে নিয়ে যাওয়ার পথে সাদনগরে চাতানপল্লিতে থেকে পালানোর চেষ্টা করে অভিযুক্তরা। তখনই পুলিশ গুলি ছোঁড়ে। এই এনকাউন্টারেই মৃত্যু হয় চার অভিযুক্ত আরিফ, নবীন, শিবা ও চেন্নাকেশাভুলুর। সূত্র: আনন্দবাজার

আরও পড়ুন