রাজপ্রাসাদে অনুপ্রবেশকারী যুবক বলেছিল ‘আমি রানিকে হত্যা করতে এসেছি

২০২১ সালে বড়দিনে (২৫ ডিসেম্বর) ব্রিটেনের রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের বাসভবন উইন্ডসর ক্যাসেলে গ্রেফতার হওয়া ব্যক্তি নিরাপত্তা কর্মকর্তাদের বলেছিলেন, ‘আমি  রানিকে হত্যা করতে এসেছি।’

বুধবার ব্রিটিশ আদালতে ওই ঘটনায় দায়ের করা মামলার শুনানি হয়েছে। শুনানিতে এই তথ্য জানানো হয়।

গ্রেফতারকৃত ২০ বছর বয়সী যশবন্ত সিং চেইলকে ব্রিটেনের রাষ্ট্রদ্রোহ আইনে অভিযুক্ত করা হয়েছে।

 

লন্ডনের ওয়েস্টমিনস্টার ম্যাজিস্ট্রেট আদালত জানিয়েছে, রাজ পরিবারের সদস্যদের আক্রমণ করতে রাজপ্রাসাদে প্রবেশ করতে যশবন্ত কয়েক মাস ধরে পরিকল্পনা করেছিল। সে যেদিন প্রসাদে অনুপ্রবেশ করেছিল ওইদিন রানি এলিজাবেথ, তার ছেলে ও সিংহাসনের উত্তরাধিকারী প্রিন্স চার্লসসহ রানির আত্মীয়রা উপস্থিত ছিলেন।

প্রসিকিউটররা জানিয়েছে, দক্ষিণ ইংল্যান্ডের সাউদাম্পটনের বাসিন্দা যশবন্ত পশ্চিম লন্ডনে রানির প্রাসাদে প্রবেশের আগে একটি ভিডিও ধারন করেন। ভিডিওতে তিনি বলেছিলেন, আমি যা করেছি এবং যা করতে যাচ্ছি তার জন্য দুঃখিত। মাস্ক পরিহিত এবং ধনুক (সুপারসনিক এক্স বো) হাতে ওই যুবক বলেন, আমি রানি এলিজাবেথকে হত্যা করতে যাচ্ছি। এটা ১৯১৯ সালে সংঘটিত গণহত্যায় নিহতদের প্রতিশোধ। পরে রাজপ্রাসাদে অনুপ্রবেশ করে সে নিরাপত্তাকর্মকর্তাদের হাতে ধরা পড়ে।

উল্লেখ্য, ১৯১৯ সালে ব্রিটিশ সেনারা ভারতের অমৃতসরে প্রায় ৪০০ জন শিখকে গুলি করে হত্যা করেছিল। ‘জালিয়ানওয়ালাবাগ হত্যাকাণ্ড’ নামে সেই ঘটনার জন্য ভারতীয়রা ব্রিটিশদেরকে আনুষ্ঠানিক ক্ষমা প্রার্থনার দাবি জানিয়ে আসছে।

ব্রিটিশ রানি এলিজাবেথ ১৯৯৭ সালে ভারত সফরকালে জালিয়ানওয়ালাবাগে নিহতদের সমাধিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন। এই ঘটনাকে তিনি ‘পীড়াদায়ক উদাহরণ’ হিসেবে উল্লেখ করেন।

রাজপ্রাসাদে অনুপ্রবেশ মামলায় সামনে আরও শুনানি হবে। তবে এখনো তারিখ প্রদান করা হয়নি।  সূত্র: রয়টার্স

আরও পড়ুন