সিরিয়ার বন্দরে লেবাননের জন্য ইরানি জ্বালানি বহনকারী জাহাজ

লেবাননের জন্য ইরানি জ্বালানি বহনকারী দ্বিতীয় জাহাজ সিরিয়ার বানিয়াস বন্দরে নোঙর করেছে। ডিজেলভর্তি এই জাহাজ সিরিয়ার বন্দরে পৌঁছার খবর জানিয়েছে লেবাননের ইসলামী প্রতিরোধ আন্দোলন হিজবুল্লাহ।

খুব শিগগিরই জাহাজ থেকে জ্বালানি নিতে লেবানন থেকে তেল ট্যাংকার বহর সিরিয়ায় যাবে বলে হিজবুল্লাহর বিবৃতিতে জানানো হয়েছে। খবর-পার্সটুডের।

লেবাননে জ্বালানি পৌঁছে দিতে তিনটি জাহাজ পাঠিয়েছে তেহরান। প্রথম জাহাজটি সিরিয়ার বন্দরে পৌঁছার পর জ্বালানি খালাস করে তা তেল ট্যাংকারে করে লেবাননে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। দ্বিতীয় জাহাজও বন্দরে ভিড়েছে। আর তৃতীয় তেলবাহী জাহাজ এখনও পথে রয়েছে।

 

লেবাননের জ্বালানি সংকট সমাধানে ট্যাংকারে করে সেদেশে জ্বালানি পাঠাচ্ছে ইরান। এর আগে লেবাননের হিজবুল্লাহ মহাসচিব সাইয়্যেদ হাসান নাসরুল্লাহ ইরান থেকে জ্বালানি আমদানির সিদ্ধান্তের কথা ঘোষণা করে বলেন, ইরানি তেল ট্যাংকারের বিরুদ্ধে যেকোনো পদক্ষেপকে লেবাননের ভূখণ্ডের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ হিসেবে গণ্য করা হবে।

লেবাননে বর্তমানে জ্বালানি সংকট দেখা দিয়েছে। বিদ্যুতের অভাবে হাসপাতাল ও রুটি তৈরির কারখানাসহ গুরুত্বপূর্ণ অনেক স্থাপনায় কার্যক্রম ব্যাহত হচ্ছে। কোনো কোনো প্রতিষ্ঠান বন্ধও হয়ে গেছে।

এ কারণে সেদেশে সরকার বিরোধী বিক্ষোভও হয়েছে। এ অবস্থায় হিজবুল্লাহ ইরান থেকে জ্বালানি আমদানির পদক্ষেপ নেয়। ইরানের প্রথম জাহাজের জ্বালানি দেশে পৌঁছার পর কৃষিখাতসহ বিভিন্ন সেক্টর সচল হতে শুরু করেছে।

 

আরও পড়ুন