স্লোগানে স্লোগানে আসছেন নেতাকর্মীরা, জনস্রোতে পরিণত হচ্ছে নয়াপল্টন

চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার কারাবাসের ২ বছর পূর্ণ হওয়ার দিনে আজ নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে সমাবেশ করবে বিএনপি। সমাবেশকে কেন্দ্র করে সকাল থেকেই ধীরে ধীরে নয়াপল্টন অভিমুখে নেতাকর্মীরা আসতে শুরু করেছেন। বিএনপির পক্ষ থেকে দাবি করা হচ্ছে, স্মরণকালের বৃহৎ জনসমাগম হবে আজকের সমাবেশে।

এর আগে গতকাল শুক্রবার বিএনপিকে সমাবেশের অনুমতি দেয় ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি)। এরপর থেকে সমাবেশ সফল করার লক্ষ্যে ঢাকার বিভিন্ন থানা ও ওয়ার্ডের নেতাকর্মীদের সঙ্গে যোগাযোগ বাড়ায় দলটি।

দেশের অন্যতম বৃহৎ এই রাজনৈতিক দলের সমাবেশকে কেন্দ্র করে ঢাকার বিভিন্ন এলাকা থেকে খণ্ড খণ্ড মিছিল নিয়ে নেতাকর্মীরা সমাবেশস্থলে জড়ো হচ্ছেন। হাতে ব্যানার, ফ্যাস্টুন নিয়ে স্লোগানে স্লোগানে আসছেন নেতাকর্মীরা। ধারণা করা হচ্ছে, দুপুর গড়ানোর আগেই জনসমুদ্রে পরিণত হবে সমাবেশস্থল।

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের সভাপতিত্বে সমাবেশে উপস্থিত থাকবেন দলটির স্থায়ী কমিটির নেতৃবৃন্দ। এছাড়াও দলের ভাইস চেয়ারম্যান, যুগ্ম মহাসচিব, সাংগঠনিক পর্যায়ের নেতারাও যোগ দেবেন সমাবেশে। থাকবেন বিএনপির অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতারাও।

এদিকে খালেদা জিয়ার মুক্তি দাবিতে গতকাল শুক্রবার ঢাকার বিভিন্ন জায়গায় লিফলেট বিতরণ করেন বিএনপি নেতাকর্মীরা। সমাবেশ থেকে বেগম জিয়ার মুক্তির দাবি উঠবে বলে দলীয় সূত্রে জানা গেছে।

প্রায় চার দশকের রাজনৈতিক জীবনে বিএনপির নেতৃত্ব দেয়ার পাশাপাশি তিনবার প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেছেন খালেদা জিয়া। দেশের অন্যতম জনপ্রিয় সেই নেত্রীর শেষ বয়সে এই দীর্ঘ কারাবাস দলের নেতাকর্মীরা কিছুতেই মেনে নিতে পারছে না। সরকার রাজনৈতিক হীন উদ্দেশ্যপ্রণোদিত হয়েই বেগম জিয়াকে কারান্তরীণ রেখে দেশে একদলীয় বাকশালী শাসন কায়েম করতে চাচ্ছে বলেও অভিযোগ আছে বিএনপির শীর্ষ নেতৃবৃন্দের।

আরও পড়ুন