হাসপাতালে লিটন দাস

ভারতের বিপক্ষে দিবা-রাত্রির ঐতিহাসিক টেস্টের প্রথম ইনিংসে মাত্র ১০৬ রানে গুটিয়ে গেছে বাংলাদেশ। বিপদের মধ্যে আরও বড় বিপদ হলো লিটন দাসের চোট। দলের সবার অসহায় আত্মসমর্পণের পালায় ওপেনার সাদমানে পর মাথা তুলে দাঁড়ানোর চেষ্টা করেছিলেন তিনি। তখনই বিপদ। লাঞ্চের পর মোহাম্মদ সামির বাউন্সারে তাকেও ফিরে যেতে হয় ড্রেসিংরুমে। সেখান থেকে সোজা তাকে নেওয়া হয় হাসপাতালে।

সাহস নিয়ে আক্রমণাত্মক উইলোবাজিতে না গিয়ে বলের লাইনে শরীর ও পা নিয়ে ব্যাকরণ মেনে খেলার চেষ্টাই করছিলেন লিটন। কিন্তু সামির বাউন্সারে হুক করতে গিয়ে ব্যাটে আনতে পারেননি। বল গিয়ে আঘাত হানে হেলমেটে। আর ব্যথা ও অস্বস্তি বোধ করে মাঠ ছেড়ে বেরিয়ে আসেন লিটন। এরপর সোজা হাসপাতালে নেওয়া হয় তাকে। তাৎক্ষণিকভাবে কোনো বাড়তি ঝুঁকি যাতে না থাকে, সেই ব্যাপারে নিশ্চিত হতে তার মাথায় সিটি স্ক্যান করানো হয়েছে। তবে রিপোর্ট পেতে দেরি হবে।

লিটন যখন মাঠ ছেড়েছেন, তার নামের পাশে অপরাজিত ২৪* রানের ইনিংস, যা বাংলাদেশের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ! দুই ওপেনার ইমরুল কায়েস, সাদমান ইসলাম, অধিনায়ক মুমিনুল হক, মোহাম্মদ মিঠুন, মুশফিকুর রহীম আর মাহমুদউল্লাহ রিয়াদরা কেউই মাথা তুলতে পারেননি। এটা যেন ছিল আসা-যাওয়ার মিছিল। ৮ ব্যাটসম্যান দুই অংকই স্পর্শ করতে পারেননি। তিন থেকে পাঁচ পর্যন্ত ব্যাটসম্যান ‘ডাক’ মেরেছেন! এমতাবস্থায় লিটনের চোট বাংলাদেশ শিবিরের জন্য দুঃসংবাদ বটে। ইডেন গার্ডেনে বাংলাদেশের ইনিংস শেষে এখন ব্যাটিংয়ে নেমেছে ভারত।

আরও পড়ুন