৭০০তম ম্যাচে মেসির কীর্তি

 চ্যাম্পিয়নস লিগে বরুশিয়া ডর্টমুন্ডের বিপক্ষে বার্সেলোনার জার্সি গায়ে ৭০০তম ম্যাচ খেলতে নামেন লিওনেল মেসি। এমন মাইলফলক ম্যাচে দুর্দান্ত এক গোলে নতুন এক রেকর্ডও গড়েছেন তিনি।

ডর্টমুন্ডের বিপক্ষে গোল করে ইউরোপ সেরার লড়াইয়ে এ নিয়ে ৩৪টি দলের বিপক্ষে গোলের কীর্তি গড়লেন এ তারকা। এতদিন পর্যন্তহ এ রেকর্ড রিয়াল মাদ্রিদের দুই রাউল গঞ্জালেস ও ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর দখলে ছিল। এবার যোগ হলো মেসির নাম।

বুধবার (২৮ নভেম্বর) দিবাগত রাতে বার্সেলোনার খেলোয়াড় হিসেবে নিজের ৭০০তম ম্যাচের মাইলফলক ছুঁয়েছেন আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড। ক্যাম্প ন্যুয়ে এ বিশেষ ম্যাচ রাঙাতে সম্ভাব্য সবই করেছেন তিনি। নিজে এক গোল করেছেন আর সতীর্থদের দিয়ে করিয়েছেন আর দুটি গোল। মেসি এ ম্যাচে বার্সেলোনায় হয়ে ক্যারিয়ারের সাতশ’ তম ম্যাচ খেলে মাইলফলক ছুঁয়েছেন। গোল করে ম্যাচটি রাঙিয়েছেন তিনি। সঙ্গে ম্যাচের শুরুতে লুইস সুয়ারেজকে দিয়ে করিয়েছেন গোল। এরপর দ্বিতীয়ার্ধে মেসির দেয়া বল ধরেই চ্যাম্পিয়নস লিগের নিজের প্রথম গোল করেন অ্যান্তোনিও গ্রিজম্যান।

ম্যাচের ২৯তম মিনিটে মেসির বানিয়ে দেয়া বলে ডর্টমুন্ডের গোলরক্ষক রোমান বুর্কিকে পরাস্ত করেন সুয়ারেস। ৪ মিনিট পর উরুগুইয়ান স্ট্রাইকারের বাড়ানো বলে চলতি আসরে নিজের দ্বিতীয় গোলের দেখা পান বার্সা অধিনায়ক। সেপ্টেম্বরে ডর্টমুন্ডের মাঠে গোলের দেখা পেতে ব্যর্থ হয়েছিলেন মেসি। বেঞ্চ থেকে বদলি হিসেবে নেমে দলের গোলশূন্য ড্র ঠেকাতে পারেননি তিনি। কিন্তু ক্যাম্প ন্যুয়ে ঠিকই ঝলক দেখিয়ে চ্যাম্পিয়নস লিগে নতুন রেকর্ড গড়ে ফেললেন।

চ্যাম্পিয়নস লিগে ডর্টমুন্ড হচ্ছে মেসির ৩৪তম শিকার। অর্থাৎ এই নিয়ে ৩৪টি ভিন্ন ভিন্ন দলের বিপক্ষে গোল করলেন আর্জেন্টাইন এ তারকা। এর আগে তাকে সমান ৩৩টি করে প্রতিপক্ষের বিপক্ষে গোলের রেকর্ড রাউল ও রোনালদোর সঙ্গে ভাগ করতে হয়েছিল।

মেসি ও সুয়ারেসের গোলে প্রথমার্ধে ২-০ গোলে এগিয়ে শেষ ষোলোর রাস্তা পরিষ্কার করে রেখেছিল বার্সা। বিরতির পর ম্যাচের ৬৭ মিনিটে মেসির ডিফেন্স চেড়া পাসে চ্যাম্পিয়নস লিগে বার্সার জার্সিতে প্রথম গোলের দেখা পান আঁতোয়া গ্রিজম্যান। পরে ম্যাচের ৭৭ মিনিটে বরুশিয়ার একমাত্র গোলটি আসে সাঞ্চোর পা থেকে। ফলে ৩-১ গোলের জয় নিয়ে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে নকআউট পর্বে পা রাখে কাতালান জায়ান্টরা।

আরও পড়ুন