৭ দিনের মধ্যে উপজেলা পর্যায়ে টিসিবির পণ্য বিক্রয়ে ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ

দেশের সকল উপজেলা পর্যায়ে এক সপ্তাহের মধ্যে টিসিবির পণ্য বিক্রয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সরকারকে নির্দেশ দিয়েছে হাইকোর্ট। বাণিজ্য সচিব, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের মুখ্য সচিব ও টিসিবির চেয়ারম্যানকে এই আদেশ বাস্তবায়ন করতে বলা হয়েছে। এ সংক্রান্ত রিটের শুনানি নিয়ে হাইকোর্টের বিচারপতি জেবিএম হাসানের একক ভার্চুয়াল বেঞ্চ আজ বুধবার এ আদেশ দেন। এছাড়া এই বিষয়ে কি কি পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে তা লিখিত আকারে আগামী ১১ জুন আদালতকে জানাতে বলা হয়েছে। ওইদিন পরবর্তী আদেশ দেওয়া হবে।

আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন ব্যারিস্টার মোহাম্মদ হুমায়ন কবির পল্লব। তাকে সহযোগিতা করেন ব্যারিস্টার মোহাম্মদ কাউসার। ব্যারিস্টার পল্লব বলেন, কম দামে টিসিবির নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য সামগ্রী বর্তমানে সিটি কর্পোরেশন এবং কিছু কিছু পৌরসভা এলাকায় বিক্রি করা হয়। ফলে এর সুফল সারাদেশের নিম্নবিত্ত এবং নিম্ন মধ্যবিত্ত সাধারণ মানুষ ভোগ করতে পারছে না। এই কম দামে পণ্য কেনার অধিকার শুধুমাত্র সিটি কর্পোরেশন এবং পৌরসভা এলাকার মধ্যকার মানুষের নয় বরং দেশের যেকোনো প্রান্তে বসবাসকারী একজন সাধারণ মানুষের অধিকার রয়েছে। করোনা ভাইরাসজনিত উদ্ভুত পরিস্থিতিতে এই টিসিবির পণ্য উপজেলা লেভেলে বিক্রির ব্যবস্থা করা হলে খাদ্য সমস্যা অনেকাংশে দূর হবে।

বেসরকারি সংগঠন ‘ল এন্ড লাইফ ফাউন্ডেশন’ এর পক্ষে সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ব্যারিস্টার মোঃ হুমায়ন কবির পল্লব গত ৩১ মে এ রিট দায়ের করেন।

রিটে বলা হয়, টিসিবির পণ্য বিক্রি শুধু সিটি কর্পোরেশন এবং পৌরসভার মধ্যে সীমাবদ্ধ না রেখে বাংলাদেশের প্রত্যেক উপজেলা পর্যায়ে সাধারণ মানুষের মধ্যে বিক্রির ব্যবস্থা করা উচিত। এতে নিন্ম ও নিন্ম মধ্যবিত্তরা উপকৃত হবেন। এছাড়া কম মূল্যে রাষ্ট্রীয় খাদ্য সামগ্রী বিক্রি শুধুমাত্র সিটি কর্পোরেশন অথবা কিছু নির্দিষ্ট এলাকার মধ্যে সীমাবদ্ধ রাখা সুস্পষ্ট ভাবে সংবিধান, মানবাধিকার এবং মৌলিক অধিকারের লংঘন।

 

 

আরও পড়ুন