ডিপ্রেশন বা বিষন্নতায় আক্রান্ত মানুষদের নিয়ে আন্তর্জাতিক একটি গবেষণা

advertisement

ডিপ্রেশন বা বিষন্নতায় আক্রান্ত মানুষদের নিয়ে আন্তর্জাতিক একটি গবেষণায় জানা গেছে, বিষন্নতার সঙ্গে জিনের একটি সম্পর্ক রয়েছে। এরকম প্রায় ১০০টি জিনকে শনাক্ত করেছেন গবেষকেরা। পৃথিবীর ২০টি দেশের ২০ লাখ মানুষের কাছ থেকে নেওয়া ব্যাপক তথ্যের ওপর করা হয় এই গবেষণা। যাদের মধ্যে জিনগত ফারাক যত বেশি ছিল তাদের ক্ষেত্রেই ডিপ্রেশনে আক্রান্ত হবার ঘটনা ও ঝুঁকি বেশি ছিল। বিষণ্নতার সঙ্গে জিনের এই সম্পর্ক খুঁজে পাওয়া চিকিত্সার ক্ষেত্রে নতুন দিগন্ত খুলে যাবে বলে মনে করা হচ্ছে।

গবেষণার জন্য যুক্তরাজ্যের বায়োব্যাংক, দি সাইকিয়াট্রি জিনোমিক্স কনসোর্টিয়াম, পার্সোনাল জেনেটিক্স ২৩ এন্ড মি, এবং রিসার্চ ইঞ্জিনিয়ারিং নামক কয়েকটি প্রতিষ্ঠান থেকে নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। এছাড়া বিভিন্ন দাতাদের কাছ থেকে ডিএনএর নমুনা নেওয়া হয়েছে। এই সকল নমুনা খতিয়ে দেখে প্রায় একশটি জিনের সন্ধান পাওয়া গেছে। যাদের মধ্যে জিনের এই ভিন্নতাটি ছিল তারাই বিষণ্নতায় আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকির মধ্যে ছিল। আন্তর্জাতিক একটি গবেষণায় জানা গেছে, বিষণ্নতার সঙ্গে জিনের একটি সম্পর্ক রয়েছে। যাদের মধ্যে জিনগত ভিন্নতা ছিল তাদের ব্রেইনের নার্ভের কোষগুলো মস্তিষ্কের সামনের অংশের সঙ্গে অনেক বেশি মাত্রায় সম্পৃক্ত ছিল।

ডিপ্রেশনে আক্রান্ত মানুষদের মধ্যে একটি কমন ডিএনএ’র সন্ধান পাওয়া গেছে। ধূমপায়ীদের মধ্যেও এই ডিএনএটি শনাক্ত করা গেছে। এছাড়া স্নায়ুবিক পীড়ার সঙ্গেও বিষণ্নতার একটা সম্পর্ক রয়েছে বলে জানাচ্ছেন গবেষকেরা। উদ্বেগ ও বিষণ্নতার মধ্যে কী ধরনের সম্পর্ক রয়েছে সেটি জানতেও এখন আরও বিশদ অনুসন্ধান চলছে।

advertisement

You might also like

advertisement