ওয়াশিংটনস্থ বাংলাদেশ দূতাবাসে বঙ্গবন্ধুর জন্মবার্ষিকী পালিত

advertisement

ওয়াশিংটনস্থ বাংলাদেশ দূতাবাসে রবিবার আনন্দময় ও মনোরম পরিবেশে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৯তম জন্মবার্ষিকী এবং জাতীয় শিশু দিবস পালিত হয়।

১৯২০ সালের আজকের এই দিনে বাংলাদেশের স্বাধীনতার স্থপতি সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি বঙ্গবন্ধু গোপালগঞ্জ জেলার টুঙ্গীপাড়ায় এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন।

দিবসটি উপলক্ষে বাংলাদেশ দূতাবাস চিত্রাঙ্কন, ও রচনা প্রতিযোগিতা এবং ‘যেমন খুশি তেমন সাজো’ প্রতিযোগিতার আয়োজন করে। বৃহত্তর ওয়াশিংটনের বিভিন্ন স্কুলের ছাত্র-ছাত্রীরা এ সকল প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করে। এ ছাড়া শিশু-কিশোররা নাচ ও গানের মাধ্যমে বাঙালি সংস্কৃতি ও ঐতিহ্য তুলে ধরে।

যুক্তরাষ্ট্রে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ জিয়াউদ্দিন সমবেত শিশু-কিশোরদের সঙ্গে নিয়ে বঙ্গবন্ধুর আবক্ষ মূর্তিতে পুষ্পার্ঘ অর্পণ করেন। দূতাবাসের কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ এবং তাদের পরিবার এ সময়ে উপস্থিত ছিলেন।

রাষ্ট্রদূত বলেন, বঙ্গবন্ধুর জন্ম বাঙালি জাতির ইতিহাসে একটি অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ ঘটনা। বঙ্গবন্ধু তার সাহসী এবং সম্মোহনী নেতৃত্বের মাধ্যমে বাঙালি জাতিকে স্বাধীনতা অর্জনে অনুপ্রাণিত করেন।

অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর বাণী পাঠ করা হয়। বাণীগুলো পাঠ করেন যথাক্রমে দূতাবাসের মিনিস্টার (প্রেস) শামিম আহমদ, মিনিস্টার (কনস্যুলার) শামসুল আলম চৌধুরী, ডিফেন্স এ্যাটাচি ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মঈনুল হাসান এবং কাউন্সিলর (কমার্স) শেখ আখতার হোসেন।

রাষ্ট্রদূতের পত্নী ইয়াসমিন জিয়াউদ্দিন প্রতিযোগীতায় অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ করেন।

advertisement

You might also like

advertisement