হিন্দু কখনও জঙ্গি হতে পারেনা

advertisement

ভারতের লোকসভা নির্বাচনকে কেন্দ্র করে দেশটিতে ‘হিন্দু জঙ্গি’ নিয়ে ব্যাপক বিতর্কের শুরু হয়েছে। ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বলেছেন, একজন হিন্দু কখনও জঙ্গি হতে পারে না।

দেশটির খ্যাতিমান অভিনেতা থেকে রাজনীতিক বনে যাওয়া কমল হাসান মন্তব্য করেছিলেন, স্বাধীন ভারতের প্রথম জঙ্গি নাথুরাম গডসে একজন হিন্দু ছিলেন। তারই জবাবে মোদী মঙ্গলবার এমন মন্তব্য করেন।

কমল হাসানের নেতৃত্বাধীন রাজনৈতিক দল মক্কাল নিধি মাইয়াম (এমএনএম)।

দেশটির কংগ্রেস নেতা দিগ্বিজয় সিংহ ‘গেরুয়া সন্ত্রাস’ নিয়ে বারবার সরব হয়েছিলেন। ভোপাল কেন্দ্রে সেই দিগ্বিজয়ের বিরুদ্ধে মালেগাঁও বিস্ফোরণে অভিযুক্ত সাধ্বী প্রজ্ঞাকে প্রার্থী করেছে বিজেপি। তা নিয়েও বিতর্ক কম হয়নি।

এরই মধ্যে ফের হিন্দু সন্ত্রাস প্রসঙ্গ উসকে দিয়েছে হাসান। এই মন্তব্যের জেরে এ দিন হাসানের বিরুদ্ধে এফআইআর করেছে তামিলনাড়ু পুলিশ। তার বিরুদ্ধে ধর্মীয় আবেগে আঘাত করা ও বিভিন্ন গোষ্ঠীর মধ্যে শত্রুতায় উসকানি দেয়ার অভিযোগ আনা হয়েছে।

হাসানের বিরুদ্ধে সুপ্রিম কোর্টে মামলা করেছেন বিজেপি নেতা অশ্বিনী উপাধ্যায় ও হিন্দু সেনার এক কর্মী। হাসানের মন্তব্যের জেরে তার ‘জিভ কেটে নেয়া উচিত’ বলে মন্তব্য করেছিলেন এডিএমকে নেতা ও রাজ্যের মন্ত্রী এ অরুণাচলম।

মঙ্গলবার এক সাক্ষাৎকারে মোদী বলেন, ‘কমল হাসানের জ্ঞান আমার চেয়ে বেশি হতে পারে। আমার সীমিত জ্ঞান বলে যে, হিন্দু কখনও জঙ্গি হতে পারেন না। আবার জঙ্গি কখনও হিন্দু হতে পারে না।’

বিজেপির হিন্দুত্ব-প্রচারের মোকাবিলায় সন্ন্যাসীদের দিয়ে যজ্ঞ করিয়েছেন দিগ্বিজয়। মধ্যপ্রদেশের খান্ডোয়ার সভায় মোদি বলেন, ‘এরা এখন যজ্ঞ করাচ্ছেন, উপবীত দেখাচ্ছেন। কিন্তু এরাই গেরুয়ার উপরে সন্ত্রাসের তকমা লাগাতে চেয়েছেন।’

অনেকের মতে, মালেগাঁও বিস্ফোরণে অভিযুক্তকে প্রার্থী করা নিয়ে প্রশ্নেও এ দিন দলীয় অবস্থান স্পষ্ট করেছেন মোদী। তথ্য সূত্র: আনন্দ বাজার।

You might also like

advertisement