ঝিনাইদহে শিক্ষকদের প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি পেশ

ঝিনাইদহ থেকে, তরিকুল ইসলাম তারেক:

advertisement

জাতীয়করণকৃত প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের বেতন নির্ধারণের জন্য চাকুরীকাল গণনা ও অন্যান্য আর্থিক সুবিধাদির প্রাপ্যতায় ষড়যন্ত্রকারীদের বিরুদ্ধে কার্য্যকর ব্যবস্থা গ্রহনসহ মানসম্মত প্রাথমিক শিক্ষা বাস্তবায়নে ১০ দফা দাবিতে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি পেশ করেছে ঝিনাইদহ জেলা জাতীয়করণকৃত প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক মহাজোট।

বুধবার সকালে ঝিনাইদহের জেলা প্রশাসক সরোজ কুমার নাথ’র মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি পেশ করেন তারা। এসময় সংগঠনটির কেন্দ্রীয় সহ সভাপতি প্রভাত কুমার, ঝিনাইদহ সদর শাখার সভাপতি নজরুল ইসলাম, আবু জাফর, আঃ রশিদ, আকবর হোসেন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। স্মারকলিপিতে উল্লেখ করা হয়, ৫০% বেসরকারী চাকুরীকাল গণনা করে গ্রেডেশন, পদোন্নতি তালিকা তৈরী, প্রধান শিক্ষকদের প্রাপ্ত টাইমস্কেলের ভিত্তিতে উন্নীত স্কেল বাস্তবায়ন করা, প্রধান শিক্ষকদের গেজেট থেকে বাদ পড়া শিক্ষকদের গেজেট সংশোধন ক্রমে প্রধান শিক্ষকদের গেজেট প্রকাশ করা, জাতীয়করণকৃত প্রাথমিক বিদ্যালয় সমূহের ৯৯ কোড পরিবর্তন করে ১ নং কোডে নিয়ে আশা সহ রেজিঃ বাদ দেওয়া, পূর্বে নিয়োগকৃত শিক্ষকদের যোগ্যতা ভিত্তিক স্কেল প্রদান, বর্তমান শুধুমাত্র সহকারী শিক্ষক পিএসসির মাধ্যমে নিয়োগ দিয়ে প্রাথমিক ক্যাডার সার্ভিস চালু করা, বর্তমান নিয়োগ বিধিতে সহকারী শিক্ষকদের নূন্যতম যোগ্যতা বি.এ পাশ নির্দ্ধারন করা হয়েছে বিধায় সহকারী শিক্ষকদের ১০ম গ্রেড ও মহাপরিচালক পর্যন্ত শতভাগ পদোন্নতির ব্যবস্থা করা, পি.আর.এল. যাওয়া জাতীয়করনকৃত শিক্ষকদের আর্থিক সমস্যা সমাধান করা, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ২৪ মে ২০১২ তারিখ জাতীয়করনের জন্য নীতিগত সিদ্ধান্ত গ্রহনের পূর্বে বাদ পড়া, চালু বিদ্যালয়, প্রমান স্বরুপ নিজ বিদ্যালয় থেকে ২০১২ সালে সমাপনি পরীক্ষায় অংগ্রহন করা, উপজেলা ও জেলা যাচাই বাছাই কমিটি দ্বারা সুপারিশকৃত এবং মন্ত্রণালয় কর্তৃক তালিকাভূক্ত বিদ্যালয়গুলি জাতীয়করনের আওতায় আনা। জাতীয়করনকৃত প্রাথমিক বিদ্যালয়ে প্রাক-প্রাথমিক শিক্ষকের পদ সৃষ্টি করা, জাতীয়করনকৃত প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দপ্তরী কাম-নৈশ প্রহরী নিয়োগের ব্যবস্থা করা।

You might also like

advertisement