মডেলিংয়ের অফারও ছেড়ে দিয়েছিলেন সোনাজয়ী মানিকা

 ১৬ এপ্রিল ২০১৮ সোমবার  ভিডিওসহ দেখতে ক্লিক করুন

অনলাইন ডেস্কঃ

মানিকা বাত্রা। উচ্চতা ৬ ফুট। দীর্ঘদেহী এই নারী যিনি ভারতের হয়ে কমনওয়েলথ গেমসে টেবল টেনিসে ব্যক্তিগত বিভাগে প্রথম সোনা জিতেছেন। সেইসাথে গড়েছেন ইতিহাস। সোনাজয়ী মানিকার সম্বন্ধে জেনে নিন কিছু চমকে দেওয়া তথ্য।

১৯৯৫ সালে ১৫ জুন দিল্লিতে জন্ম মানিকা বাত্রার। আলিয়া ভাট তার পছন্দের অভিনেত্রী। দেখতে পছন্দ করেন আমেরিকার টিভি সিরিয়াল বিগ ব্যাং থিউরি। এর পাশাপাশি ফটোশুট করতে এবং মিউজিকের তালে পা মেলানোও ভীষণ পছন্দ তার।

তবে এগুলো সবই পছন্দ। ভালোবাসার বিষয় কিন্তু একটাই, টেবিল টেনিস। আর তাই মাত্র ২২ বছর বয়সে তার বিশ্ব র‌্যাঙ্কিং ৫৮। এই বয়সেই ভারতীয় অন্যতম সেরা টেবিল টেনিস খেলোয়াড় হয়ে উঠেছেন তিনি।

আকর্ষণীয় চেহারা ও উচ্চতার জন্য অন্তত চার বার তাকে মডেল হওয়ার প্রস্তাব দিয়েছিল বিভিন্ন সংস্থা। কিন্তু মানিকা ফিরিয়ে দেন সব প্রস্তাব।

৪ বছর বয়স থেকে টেবিল টেনিসে তার আগ্রহ জন্মায়। মানিকারা তিন ভাই বোন। মানিকাই সবচেয়ে ছোট। তার দাদা সাহিল এবং দিদি আঁচলও টেবল টেনিস খেলতেন। আঁচল আবার দিল্লির হয়ে জাতীয় প্রতিযোগিতায় নেমেছেন। দিদিকে দেখেই টেবিল টেনিসে তার আগ্রহ।

মাত্র ১৫ বছর বয়সে দিল্লির হয়ে প্রথম জাতীয় স্তরের প্রতিযোগিতায় তিনি রূপা জিতেন। ২০১৪ সালে গ্লাসগোয় কমনওয়েলথেও অংশগ্রহণ করেন, কিন্তু কোয়ার্টার ফাইনালে পরাজিত হন। ২০১৬ সাউথ এশিয়ান গেমস-এ তিনটি বিভাগে সোনা জিতেন।

২০১৬ সালে রিও অলিম্পিকে নখে তেরঙা আঁকার জন্য দৃষ্টি আকর্ষণ করেছিলেন মিডিয়ার। তবে নিজের কৃতিত্বেই নখ থেকে মিডিয়ার দৃষ্টি নিজের খেলার প্রতি ঘুরিয়ে আনেন তিনি।