শিগগিরই ৩ হাজার সেনাকে বরখাস্ত করবে তুরস্ক

 ২০ এপ্রিল ২০১৮ শুক্রবার  ভিডিওসহ দেখতে ক্লিক করুন

অনলাইল  ডেস্কঃ

তুরস্ক সরকার দেশটির সেনাবাহিনীর তিন হাজার সদস্যকে বরখাস্তের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তুর্কি সংসদে এ তথ্য জানিয়েছেন দেশটির প্রতিরক্ষামন্ত্রী নুরুদ্দিন জানিকলি। ২০১৬ সালের জুলাইয়ে তুরস্কে ব্যর্থ অভ্যুত্থানচেষ্টার পর শুরু হওয়া শুদ্ধি অভিযানের অংশ হিসেবে তাদের বরখাস্ত করা হচ্ছে। 

আমেরিকায় স্বেচ্ছানির্বাসনে থাকা ভিন্ন মতাবলম্বী নেতা ফতেহউল্লাহ গুলেনের সাথে এসব সেনার সম্পর্ক রয়েছে তাদেরকেই বরখাস্ত করা হবে বলে জানিয়েছে সরকার।

তুর্কি প্রতিরক্ষামন্ত্রী বলেছেন, জরুরি ডিক্রির মাধ্যমে তাদের বরখাস্ত করা হবে। প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরে কাগজপত্র পাঠানো হয়েছে। অভুত্থান চেষ্টার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে এর আগেও সেনাবাহিনীর হাজার হাজার সদস্য ও কর্মকর্তাকে বরখাস্ত করা হয়েছে।

২০১৬ সালে অভ্যুত্থান চেষ্টার সময় তুর্কি সেনাবাহিনীর একটা অংশ দাবি করেছিল প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়্যেব এর্দোগানকে ক্ষমতাচ্যুত করা হয়েছে। এর কয়েক ঘণ্টা পরই অভ্যুত্থান চেষ্টা ব্যর্থ হয়।

ওই ঘটনার পর থেকে জরুরি অবস্থা জারি রয়েছে তুরস্কে। অভ্যুত্থান প্রচেষ্টার সঙ্গে জড়িত থাকার দায়ে দেশটির সেনাবাহিনীর বহু জেনারেলসহ ১ লাখ ৪০ হাজারের বেশি সরকারি কর্মচারী ও সাংবাদিককে চাকরিচ্যুত করা হয়েছে। এছাড়া গ্রেপ্তার হয়েছে আরও প্রায় ৫০ হাজার মানুষ।

ব্যর্থ অভ্যুত্থানচেষ্টার জন্য আমেরিকায় স্বেচ্ছানির্বাসনে থাকা ভিন্ন মতাবলম্বী নেতা ফতেহউল্লাহ গুলেনকে দায়ী করে আসছে তুরস্ক সরকার। তবে গুলেন তার বিরুদ্ধে আনা সব অভিযোগ বরাবরই প্রত্যাখ্যান করেছেন।