টাঙ্গাইলে ঘুষ গ্রহণকালে হাতেনাতে ম্যাজিস্ট্রেটের পেশকার জাকির আটক

 ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৭ বুধবার সহ দেখতে ক্লিক করুন

হাফিজুর রহমান.টাঙ্গাইল জেলা প্রতিনিধিঃ

টাঙ্গাইলে ঘুষ গ্রহণকালে হাতেনাতে ম্যাজিস্ট্রেটের পেশকার(বেঞ্চ সহকারী) জাকির হোসেনকে(৩৫) আটক করেছে দুদক। বুধবার(১৩ সেপ্টেম্বর) সকালে টাঙ্গাইল কোর্ট চত্বর এলাকার মজা রেস্টুরেন্ট থেকে নগদ ১৫ হাজার টাকা ঘুষ গ্রহণকালে তাকে আটক করা হয়। আটককৃত পেশকার জাকির হোসেন টাঙ্গাইলের ধনবাড়ী উপজেলার উখারিয়া বাড়ী গ্রামের মতিয়ার রহমানের ছেলে। দুর্নীতি দমন কমিশন সমন্বিত জেলা(টাঙ্গাইল) কার্যালয়ের উপ-পরিচালক সমর কুমার ঝাঁ জানান, এক ব্যক্তি কৃষি ব্যাংক টাঙ্গাইল শাখা থেকে ২৬ লাখ ৪০ হাজার টাকার একটি চেক উত্তোলনের চেষ্টা করেন। চেকের উত্তোলনকৃত টাকার পরিমান ৫ লাখ টাকার উপরে হওয়ায় ব্যাংক কর্তৃপক্ষ চেকের হিসাব নম্বরধারীকে ফোনে চেকটি তিনি পাঠিয়েছেন কিনা জিজ্ঞাসা করেন। চেকের হিসাব নম্বরধারী চেকটি তিনি পাঠাননি বলে জানানোর পর ব্যাংক চেকটি গ্রহণ করলেও টাকাগুলো দেয়নি। পরে বিকেবি টাঙ্গাইল শাখার গ্রাহক স্বপন মিয়া ও আকবর আলী নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ‘ক’ অঞ্চল আদালতে তাদের একটি চেক হারিয়েছে ও ব্যাংকে চেকটি জমা আছে এবং চেকটি উদ্ধারে একটি পিটিশন মোকদ্দমা দায়ের করেন। পিটিশন মোকদ্দমাকারী স্বপন মিয়া ও আকবর আলী চেকটি উদ্ধারে তদবির করতে ম্যাজিস্ট্রেটের পেশকার(বেঞ্চ সহকারী) জাকির হোসেনের সাথে যোগাযোগ করেন। জাকির হোসেন চেকটি উদ্ধারের জন্য ৫০ হাজার টাকা ঘুষ দাবি করেন। উভয় পক্ষের আলোচনায় চেক উদ্ধার বাবদ ২৫ হাজার টাকা ঘুষ দেয়ার চুক্তি হয়। এ ঘুষ বাবদ ইতোপূর্বে জাকির হোসেন ১০ হাজার টাকা গ্রহণ করেন। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে পিটিশন মোকদ্দমা করা স্বত্তেও ঘুষ ছাড়া চেক উদ্ধার হচ্ছেনা এই মর্মে স্বপন মিয়া ও আকবর আলী দুর্নীতি দমন কমিশন সমন্বিত জেলা কার্যালয়ে একটি আবেদন করেন। এ আবেদন গ্রহণ ও প্রধান কার্যালয়ের অনুমতিতে এই ঘুষ গ্রহণকারী পেশকার আটকের জন্য একটি ফাঁদ মামলা পরিচালনা করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। বুধবার এ ফাঁদ মামলা পরিচালনার মাধ্যমে ও ঘুষের বাকি ১৫ হাজার টাকা গ্রহণকালে হাতেনাতে ম্যাজিস্ট্রেটের পেশকার (বেঞ্চ সহকারী) জাকির হোসেনকে আটক করা হয়। তার বিরুদ্ধে দুর্নীতি দমন কমিশন সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মো. আমির হোসেন বাদী হয়ে টাঙ্গাইল মডেল থানায় মামলা দায়ের করেছেন।