পিরোজপুরে স্কুল শিক্ষককে কুপিয়ে হত্যা

 ১১ সেপ্টেম্বর ২০১৭ সোমবার সহ দেখতে ক্লিক করুন

অনলাইন ডেস্কঃ

পিরোজপুরের ভান্ডারিয়া উপজেলায় জমি নিয়ে বিরোধে এক স্কুল শিক্ষকে কুপিয়ে হত্যা করেছে প্রতিপক্ষরা। নিহত শিক্ষকের নাম মাওলানা নাসির উদ্দিন (৫৫)।

সোমবার ভোরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে ৩ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।  

নাসির উদ্দিন ভান্ডারিয়া উপজেলার ইকরি ইউনিয়নের পশ্চিম পশারীবুনিয়া (মাদাসী) গ্রামের মৃত আব্দুল গণি হাওলাদারের পুত্র। মাওলানা নাসির উদ্দিন ভান্ডারিয়া উপজেলার হেতালিয়া নেছারউদ্দিন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ইসলাম ধর্ম বিষয়ের শিক্ষক ছিলেন।  

ইকরি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান হুমায়ুন কবির জানান, জমি-জমা নিয়ে বিরোধের জেড় ধরে রবিবার ভোরে ইকরি  ইউনিয়নের পশ্চিম পশারীবুনিয়া গ্রামের মৃত সালাম হাওলাদার তার লোকজন নিয়ে স্কুল শিক্ষক নাসির উদ্দিনের বাড়ি-ঘর ভাঙচুর শুরু করে। এ সময় স্কুল শিক্ষক নাসির উদ্দিন বাধা দিতে এলে তাকে কুপিয়ে গুরুতর আহত করে। পরে আত্মীয়-স্বজন ও স্থানীয়রা নাসির উদ্দিনকে উদ্ধার করে প্রথমে ভান্ডারিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। অবস্থা গুরুতর হওয়ায় চিকিৎসক সেখান থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল শেরে বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করে। পরে রবিবার সন্ধ্যায় বরিশাল শেরে বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হলে আজ ভোর রাতে নাসির উদ্দিন মারা যায়।  

ভান্ডারিয়া থানার ওসি মো. কামরুজ্জামান তালুকদার জানান, এ ঘটনায় থানায় হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে এবং অভিযুক্ত সালাম হাওলাদার, তার ছেলে রমিজ হাওলাদার ও ভাগ্নে মিজানুর রহমান টিপুকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।