ক্রিকেট খেলাকে কেন্দ্র করে আওয়ামীলীগ ও বিএনপি পন্থিদের মধ্যে সংঘর্ষ, ভাংচুর ॥ আহত ১০ ॥ আটক ৩


নিজস্ব প্রতিবেদক: ক্রিকেট খেলাকে কেন্দ্র করে আওয়ামীলীগ ও বিএনপি পন্থিদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। শনিবার সন্ধ্যায় বরিশাল মহানগরীর ১৪নং ওয়ার্ড কালু শাহ সড়কে এ ঘটনা ঘটে। এদিকে এ ঘটনায় ১০ জন আহত এবং ৩জন আটক হয়েছে বলে জানা গেছে। স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, শনিবার বিকেলে কালু শাহ্ সড়কে ক্রিকেট খেলাকে কেন্দ্র করে মারামারি হয় ১৪নং ওয়ার্ডের ইমরানের সাথে একই ওয়ার্ডের বাসিন্দা নয়নের। ইমরান সদর আসনের সাংসদ জেবুন্নেছা আফরোজ পন্থি ও ১৪নং আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি আকবরের ছেলে। আর নয়ন বরিশাল জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আহসান হাবিব কামাল পন্থি ও ওয়ার্ড বিএনপি নেতা ঝন্টুর ছেলে। যার প্রেক্ষিতে বিএনপি নেতা ঝন্টু তার অনুসারীদের নিয়ে তার ছেলেকে মারার কারন জিজ্ঞাসা করতে যায় আওয়ামীলীগ নেতা আকবরের কাছে। সে সময় আকবর উত্তেজিত হয়ে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ শুরু করে ঝন্টু ও তার অনুসারীদের উদ্দেশ্যে। কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষের সৃষ্টি হয়। সংঘর্ষ থেমে গেলে আওয়ামীলীগ নেতা আকবর মহানগর যুবলীগ নেতা তৌহিদুল ইসলাম সাবিদের স্মরনাপন্ন হলে সাবিদ তার সাঙ্গ পাঙ্গদের ধারালো দেশীয় অস্ত্র সহ ঝন্টু ও তার ছেলে ইমরানকে মারার জন্য বলে। তখন সাবিদের অনুসারীদের সাথে নিয়ে আকবর ও তার ছেলে ইমরান বিএনপি নেতা ঝন্টুর বসতঘড় ও একটি দোকান ব্যাপক ভাংচুর করে। ঘটনাস্থলে সাথে সাথে পৌছেঁ কোতয়ালী মডেল থানা পুলিশের একটি টহল টিমের প্রধান এস আই নজরুল ও পার্শ¦বর্তী বটতলা পুলিশ ফাড়ির টিএসআই সিকান্দার একটি দা সহ আওয়ামীলীগ নেতা আকবরকে আটক করে। পরে তার ছেলে ইমরান এবং বিএনপি নেতা ঝন্টুর ছেলে নয়নকে আটক করে কোতয়ালী মডেল থানা পুলিশ। এ ঘটনায় ১০ জন আহত হয়েছে বলে জানা গেছে। এদের মধ্যে গুরুত্বর আহতরা হলেন ছাত্রদল কর্মী সোহেল রাঢ়ী, নয়নের মা, রুম্মান, শাওন। আহতদের চিকিৎসা প্রদান করা হয়েছে। এদিকে বিএনপি নেতা ঝন্টুর বসতবাড়ি ভাংচুর করার ঘটনায় প্রায় ৫০ হাজার টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে জানা গেছে। এ বিষয়ে যুবলীগ নেতা তৌহিদুল ইসিলাম সাবিদ ভাংচুরের বিষয়টি স্বীকার করে জানান, বিষয়টি সালিশি করতে জাওয়ার পর বিএনপির লোকজন আমাদের উপর ইট পাটকেল নিক্ষেপ করলে আমার লোকজন ওদের ঘড় ভাংচুর করে। এ বিষয়ে বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের মুখপাত্র ও এসি (ডিবি) মো: আবু সাঈদ জানান, এঘটনায় কয়েকজনকে আটক করা হয়েছে। তাদের জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। আর এ ঘটনার পর ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়ন করা হয়েছে।