মাধবপুর লেক যেন প্রকৃতির নিজ হাতে আঁকা মায়াবী এক নৈসর্গিক দৃশ্য

২০ আগস্ট  ২০১৬, শনিবার  সহদেখতে ক্লিক করুন


তোফায়েল আহমেদ, শ্রীমঙ্গল ( মৌলভীবাজার ) প্রতিনিধি : অপার সৌন্দর্যের লীলাভূমি মৌলভীবাজার জেলার কমলগঞ্জ উপজেলার অন্যতম পর্যটনকেন্দ্র মাধবপুর লেক দেশি-বিদেশি পর্যটকদের পদচারনায় মুখরিত হয়ে উঠে। প্রতিদিন দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে অপরূপ এ প্রাকৃতিক দৃশ্য দেখতে ছুটে আসছেন হাজার হাজার পর্যটক। বিশেষ করে সাপ্তাহিক ছুটির দিন শুক্র ও শনিবার পর্যটকদের ঢল নামে এখানে। আনন্দ ভ্রমণ কিংবা পিকনিক করতে বন্ধুরা মিলে চলে আসছেন মাধবপুর লেকে। আসছেন দিনের প্রথম দিকে অথবা পড়ন্ত বিকেলে। চারদিকে সবুজ পাহাড়। পাশাপাশি উঁচু উঁচু টিলা। সমতল চা বাগানে গাছের সারি। হয়তো এরই মাঝে একঝাঁক পাখি অথিতিদের আমন্ত্রণ জানাবে তার সুরের মুর্চ্ছনা দিয়ে। দেখতে পাবেন নানান প্রজাতির বন্যপ্রাণীও। মাধবপুর লেক যেন প্রকৃতির নিজ হাতে আঁকা মায়াবী এক নৈসর্গিক দৃশ্য। সুনীল আকাশ আর গাঢ় সবুজ পাহাড়, শিল্পীর তুলিতে আঁকা ছবির মত চা বাগানের মনোরম দৃশ্য আপনাকে নিয়ে যাবে ভিন্ন জগতে। গাড়ি থেকে নামতেই সবুজ পাতার গন্ধ আপনার মনকে চাঙ্গা করে তুলবে। বানর আর হনুমানের লাফালাফি দেখে শিশু কিশোরের মতই আনন্দ পাবেন আপনি। চারদিকে সুউচ্চ পাহাড়ের মাঝখানের লেকটি পার হয়ে যতই সামনে যাবেন ততই ভালো লাগবে। শুধু শীত নয় এই বর্ষা মৌসুমেও প্রতিদিন পর্যটকরা আসছেন মাধবপুর লেকে। তবে পর্যটন উপযোগী তেমন কোনো সুবিধা নেই এখানে। জানা গেছে, মাধবপুর লেকটিকে পর্যটনকেন্দ্র হিসাবে গড়ে তুলতে ২০০৫ সালের ১০ অক্টোবর একটি প্রকল্প হাতে নেয়া হয়। কমলগঞ্জ উপজেলার মাধবপুর ইউনিয়নে পাত্রখলা চা বাগানে লেকটির অবস্থান। এটি মৌলভীবাজার থেকে ৪০ কিলোমিটার দক্ষিণে ও শ্রীমঙ্গল থেকে ১৫ কিলোমিটার পূর্বে অবস্থিত।