কুষ্টিয়ার পুলিশের সাথে পৃথক বন্দুকযুদ্ধে দুই ডাকাত নিহত॥ অস্ত্র, গুলি উদ্ধার, ৭ পুলিশ সদস্য আহত

 ২৬ জুলাই  ২০১৭, বুধবার সহ দেখতে ক্লিক করুন

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি :

কুষ্টিয়ার বাড়াদী ও ভেড়ামারার দশ মাইলে পুলিশের সাথে বন্দুকযুদ্ধে দুই ডাকাত নিহত হয়েছে। উদ্ধার করা হয় অস্ত্র, গুলি ও ধারালো অস্ত্র। পৃথক এ বন্দুকযুদ্ধের ঘটনায় ৭ পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন। কুষ্টিয়া মডেল থানার ওসি (অপারেশন) ওবাইদুল্লাহ জানান, মঙ্গলবার মধ্যেরাতে পুলিশের হাতে আটককৃত কুখ্যাত ডাকাত সোবহান আলী (৩৭) কে নিয়ে অন্য ডাকাতদের আটক করতে সদর উপজেলার বাড়াদী গোরস্থানপাড়ায় গেলে সহযোগী ডাকাতরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে। এসময় পুলিশের হাতে গ্রেফতারকৃত সোবাহান পালানোর চেষ্টা করে। পুলিশও আতœরক্ষার্থে গুলি ছুড়লে ডাকাত পুলিশের সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা যায় সোবাহান। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ১টি পিস্তল, ১টি সার্টারগান, গুলি ও কুড়াল উদ্ধার করে। সোবাহান কুমারখালী উপজেলার মনোহরপুর গ্রামের নুর উদ্দিনের ছেলে। তার বিরুদ্ধে ডাকাতিসহ বিভিন্ন অপরাধের একাধিক মামলা রয়েছে। অন্যদিকে একইরাতে কুষ্টিয়া-পাবনা মহাসড়কের ভেড়ামারা উপজেলাধীন ১০ মাইলে ডাকাতি হচ্ছে এমন সংবাদের ভিত্তিত্বে ভেড়ামারা থানা পুলিশ সেখানে অভিযানে গেলে ডাকাতরা পুলিশকে লক্ষ্যকরে গুলি ছুড়লে পুলিশও পাল্টা গুলি করে। বন্দুক যুদ্ধের এক পর্যায়ে অজ্ঞাত পরিচয়ের এক ডাকাত নিহত হয়। সেখান থেকে উদ্ধার করা হয় ১টি সার্টারগান, ১ রাউন্ড গুলি ও ২টা ধারালো রামদা। ভেড়ামারা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নুর হোসেন খন্দকার ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানিয়েছেন নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।