বেলকুচিতে মুক্তিপণ না পেয়ে যুবক হত্যা হাত-পা বাঁধা লাশ উদ্ধার


 ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৭ বুধবার ভিডিওসহ দেখতে ক্লিক করুন 

মোস্তাফিজুর রহমান,সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি : 
সিরাজগঞ্জের বেলকুচিতে মু্িক্তপনের টাকা না পেয়ে মনতোষ কুমার সরকার (২৮) নামে এক যুবককে হত্যা করা হয়েছে। অপহরনের দুদিন পর বুধবার সকালে পুলিশ উপজেলার বিশ্বাসবাড়ী গ্রামে হুড়াসাগর নদীর ব্রীজের নীচে কচুরিপানার ভেতর থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করেছে। নিহত মনতোষ কুমার উপজেলার ভাঙ্গাবাড়ী ইউনিয়নের খাস সোনামুখী গ্রামের মঙ্গল সরকারের ছেলে। এর আগে বৃহস্পতিবার রাতে ঘটনার সাথে জড়িত সন্দেহে দুজনকে আটক করা হয়েছে। আটকৃতরা হলো- কামারখন্দ উপজেলার বলরামপুর গ্রামের গিয়াস উদ্দিনের ছেলে শিপন (৩২) ও  বেলকুচি উপজেলার খাস সোনামুখী গ্রামের দেওয়ান কুমারের ছেলে সুজন কুমার।
নিহতের চাচাতো ভাই অচিন্ত কুমার সরকার জানান, সোমবার রাতে মনতোষ প্রতিবেশী সুজন কুমারের সাথে পিকনিক খাওয়ার কথা বলে বলরামপুর গ্রামের শিপনদের বাড়ীতে যায়। এরপর সে আর ফিরে আসে না।  রাত তিনটার দিকে তার আরেক ভাই কৃষ্ণ কুমারের  ফোনে দুই লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবী করা হয়।  মুক্তিপণের টাকা কিভাবে, কোথায় দিতে হবে তা নিয়ে রাত থেকে মঙ্গলবার সকাল পর্যন্ত দফায় দফায় কথা হলেও অপহরণকারীরা ঠিকানা বলেনি। পরে দুপুরের দিকে থানায় অভিযোগ করা হয়। 
বেলকুচি থানার উপ-পরিদর্শক শামীম আহমেদ জানান, মঙ্গলবার দুপুরে তার চাচাতো ভাই অচিন্ত কুমার থানায় অভিযোগ করেন। অভিযোগের পরই শিপন ও সুজনকে রাতেই আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। তাদের দেয়া তথ্যমতে বুধবার সকালে বিশ্বাসবাড়ী হুড়াসাগর নদীর ব্রীজের নীচে কচুরি পানার ভেতরে লুকানো মনতোষের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে।