শেরপুরে ঘুর্ণিঝড়ে গুড়িয়ে দিয়েছে আদিবাসী পল্লীর বসতঘর

 ৩ এপ্রিল ২০১৭, সোমবার সহ দেখতে ক্লিক করুন

জিয়াউল হক, শেরপুর প্রতিনিধি:

বৈশাখের আগেই শেরপুরের নালিতাবাড়ীর সীমান্তবর্তী দাওধারা কাটাবাড়ী পাড়ায় ৩ এপ্রিল রবিবার গভীররাতে কাল বৈশাখী ঝড়ের তান্ডবে লন্ডভন্ড হয়েছে গারো আদিবাসী পল্লীর কমপক্ষে ৬টি পরিবার। এসব পরিবারগুলো এখন মানবেতর জীবন যাপন করছে। ক্ষতিগ্রস্থ পরিবার গুলো হলো, মিসি সাংমা, মনিকা সাংমা, অতি সাংমা, জার্টিন সাংমা, ইঞ্জিরাজ মারাক ও সুচিত্রা মারাকের পরিবার। এদের মধ্যে অতি সাংমার ২টিসহ প্রত্যেক পরিবারের ১টি করে বসতঘর ঘুর্ণিঝড়েরর ছোবলে চালের টিন উড়িয়ে নিয়ে অন্যত্র ফেলে দিয়েছে। স্থানীয় সুত্রে জানা গেছে, রবিবার রাতে প্রতিদিনের মতো ঘুমাতে য়ায় ওইসব পরিবারের সদস্যরা। এসময় বিদ্যুত চমকে আকাশ মেঘাচ্ছন্ন করে হঠাৎ করে ঘুর্নিঝর শুরু হয়। এতে ওই গারোপল্লীর ৬টি পরিবারে ছাপরা ঘরের চাল উড়িয়ে নিয়ে যায়। ভুক্তভুগি অতি সাংমা জানান, ঘর-বাড়ি হারিয়ে আমরা অতিকষ্টে আছি। ছোট বাচ্চাদের নিয়ে রাত্রি যাপনের সমস্যায় পড়েছি। সংশ্লিষ্ট ইউপি চেয়ারম্যান ইউনুছ আলী দেওয়ান বলেন, আমি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি কর্তৃপক্ষের সাথে পরামর্শ করে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহন করব।

এ ব্যাপারে নালিতাবাড়ী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) তরফদার সোহেল রহমান বলেন, সংশ্লিষ্ট জনপ্রতিনিধির মাধ্যমে ক্ষতিগগ্রস্থদের তালিকা প্রনয়ন করে জেলা প্রশাসকের পাঠিয়ে দিয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়া হবে।