গুরুদাসপুরে একজনকে কুপিয়ে হত্যা

 ২১ আগস্ট  ২০১৭, সোমবার সহ দেখতে ক্লিক করুন

নাটোর থেকে নাজমুল হাসান নাহিদঃ

নাটোরের গুরুদাসপুরে পুর্ব শত্রুতার জের ধরে আশিক (২৩) নামক একজনকে কুপিয়ে হত্যা করেছে মাদক ব্যবসায়ী জালাল মন্ডল (৫০) ও তার ছেলে আশিক ইকবাল ওরফে অলি (২২)। এঘটনার নিহতের পরিবারে চলছে শোকে’র মাতম। অভিযোগ সুত্রে জানাযায়, পুর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী রোববার রাত সাড়ে আটটার দিকে আশিককে অলি ফোন করে। রাত সাড়ে নয়টার দিকে আশিক তার বাড়ীতে যায়। সেখানে অলি, তার বাবা জালাল, মা আলেয়া বেগম (৪২) রামদা ও হাসুয়া দিয়ে উপর্যপুরি কুপিয়ে তাকে হত্যা করা হয় মর্মে নিহত আশিকের বাবা নজরুল ইসলাম বাদী হয়ে থানায় অভিযোগ দিয়েছে। সরেজমিনে ও স্থানীয় সুত্রে জানাযায়, রোববার রাত ১০টার দিকে পৌর সদরের খামারনাচকৈড় মহল্লায় ওই ঘটনা ঘটে। চাঁচকৈড় কাচারী পাড়ার পৌর কর্মচারী নজরুল ইসলামের ছেলে আশিককে তার বন্ধু রাজু সেখানে নিয়ে যায়। খামারনাচকৈড় গোরস্থান পাড়ায় জালালের বাড়ীর রাস্তায় গেলে আশিককে জোড় করে বাড়ীতে ধরে নিয়ে যায়। কুখ্যাত মাদক ব্যবসায়ী জালাল ও তার ছেলে অলি এবং অলি’র দুই বন্ধু মিলে চা পাতি ও হাসুয়া দিয়ে কুপিয়ে তাকে হত্যা করে। নিহত আশিকের চিৎকারে স্থানীয়রা গিয়ে অচেতন দেহ অলি’র বাড়ীর সামনে পড়ে থাকতে দেখে। স্খানীয়রা আশিকের ক্ষতবিক্ষত নিথর দেহ উদ্ধার করে গুরুদাসপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্রে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করেন। ওই ঘটনার পর থেকে আসামীরা বাড়ী ছেড়ে পালিয়েছে। হত্যাকারীদের বাড়ীতে রাত থেকে পুলিশ পাহাড়া রয়েছে। ঘটনার পর থেকে আশিকের বন্ধু রাজু আত্মগোপনে রয়েছে বলে জানাযায়। এদিকে আশিকের ৮মাসের পিতা হারা ফুটফুটে মেয়ে রুজাইফা এ প্রতিদেক ছবি উঠাতে গেলে ফ্যাল ফ্যাল করে তাকিয়ে থাকে। নিহতের বাবা নজরুল ইসলাম জানান, তার ছেলেকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে। হত্যাকারীদের দ্রুত গ্রেফতার করে আইনের আওতায় নিয়ে আসার জোড় দাবি জানান।গুরুদাসপুর থানার অফিসার ইনচার্জ দিলিপ কুমার দাস জানান, লাশ উদ্ধার কওে নাটোর সদও হাসপাতালে ময়না তদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। পুর্বশত্রুতার জেরে তাকে হত্যা করা হয়েছে বলে প্রাথমিক ভাবে ধারনা রা হচ্ছে। তদন্ত শেষে হত্যার প্রকৃত কারন জানা যাবে। রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত মামলার প্রস্তুতি চলছে।