নীলফামারীতে পুলিশি অভিযানে ইউপি চেয়ারম্যানসহ গ্রেফতার ৪০

 ০৭ জুলাই  ২০১৭,  শুক্রবার সহ দেখতে ক্লিক করুন

অনলাইন ডেস্কঃ

নীলফামারী জেলার ৬ উপজেলায় অভিযান চালিয়ে বিভিন্ন মামলা ও চার্জশিটভুক্ত জামায়াতের পলাতক ৪০ আসামিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার রাত থেকে আজ শুক্রবার ভোর পর্যন্ত পুলিশের বিশেষ অভিযানে গ্রেফতার হন তারা।

জিআর, সিআর ও বিভিন্ন মামলার গ্রেফতারদের মধ্যে জলঢাকা থানায় ২১ জন, ডোমার থানায় ৬ জন, কিশোরীগঞ্জ থানায় ৫ জন, সদর থানায় ৩ জন, সৈয়দপুর থানায় ৩ জন ও ডিমলা থানায় ২ জন রয়েছে।

জেলা পুলিশের কন্ট্রোল রুম সূত্রে জানা যায়, গ্রেফতারদের মধ্যে চারজন বিস্ফোরক মামলার আসামি রয়েছে। এরা হলেন-জলঢাকা উপজেলা গোলমুন্ডা ইউনিয়নের জামায়াতের আমির ও ওই ইউনিয়নের ইউপি চেয়ারম্যান তোজাম্মেল হোসেন (৫৫), একই এলাকার সক্রিয় জামায়াত কর্মী আব্দুর রাজ্জাক (৪৮), আহমেদ হোসেন (৪৫) ও কিছামত খুটামারা বটতলী এলাকার জামায়াত কর্মী সৈয়দ আলী (৪৫)।

এছাড়া একই থানার জামায়াত কর্মী দক্ষিণ দেশীবাই এলাকার মাহমুদুল আলম (৩৫), নুরুজ্জামান (৩২) ও মীরগঞ্জ এলাকার নঈমুন হককে (৩০) ১৫১ ধারায় গ্রেফতার করা হয়।

অপরদিকে, ৩৩ জন আসামি আদালতের ওয়ারেন্টভুক্ত। গ্রেফতারদের বিরুদ্ধে নাশকতা, চুরি-ডাকাতি ও সন্ত্রাসবিরোধী আইনে মামলা রয়েছে।

নীলফামারী জেলার ৬ উপজেলায় অভিযান চালিয়ে বিভিন্ন মামলা ও চার্জশিটভুক্ত জামায়াতের পলাতক ৪০ আসামিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার রাত থেকে আজ শুক্রবার ভোর পর্যন্ত পুলিশের বিশেষ অভিযানে গ্রেফতার হন তারা। জিআর, সিআর ও বিভিন্ন মামলার গ্রেফতারদের মধ্যে জলঢাকা থানায় ২১ জন, ডোমার থানায় ৬ জন, কিশোরীগঞ্জ থানায় ৫ জন, সদর থানায় ৩ জন, সৈয়দপুর থানায় ৩ জন ও ডিমলা থানায় ২ জন রয়েছে। জেলা পুলিশের কন্ট্রোল রুম সূত্রে জানা যায়, গ্রেফতারদের মধ্যে চারজন বিস্ফোরক মামলার আসামি রয়েছে। এরা হলেন-জলঢাকা উপজেলা গোলমুন্ডা ইউনিয়নের জামায়াতের আমির ও ওই ইউনিয়নের ইউপি চেয়ারম্যান তোজাম্মেল হোসেন (৫৫), একই এলাকার সক্রিয় জামায়াত কর্মী আব্দুর রাজ্জাক (৪৮), আহমেদ হোসেন (৪৫) ও কিছামত খুটামারা বটতলী এলাকার জামায়াত কর্মী সৈয়দ আলী (৪৫)। এছাড়া একই থানার জামায়াত কর্মী দক্ষিণ দেশীবাই এলাকার মাহমুদুল আলম (৩৫), নুরুজ্জামান (৩২) ও মীরগঞ্জ এলাকার নঈমুন হককে (৩০) ১৫১ ধারায় গ্রেফতার করা হয়। অপরদিকে, ৩৩ জন আসামি আদালতের ওয়ারেন্টভুক্ত। গ্রেফতারদের বিরুদ্ধে নাশকতা, চুরি-ডাকাতি ও সন্ত্রাসবিরোধী আইনে মামলা রয়েছে।