নেত্রকোনায় হিন্দু সমাজ সংস্কার সমিতির কেন্দ্রীয় নেতার বিভিন্ন মন্দির পরিদর্শন

 ২ডিসেম্বর ২০১৭ শনিবার ভিডিওসহ দেখতে ক্লিক করুন    
নয়ন বর্মন নেত্রকোনাঃ
 বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের(ইউজিসি)অবসরপ্রাপ্ত পরিচালক ও বাংলাদেশ হিন্দু সমাজ সংস্কার সমিতি'র কেন্দ্রীয় সাধারন সম্পাদক লায়ন অনিল পাল স্ব পরিবারে নেত্রকোনায় বিভিন্ন মন্দির ও কেন্দ্রীয় মহাশ্মশান পরিদর্শন করেছেন।
১ ডিসেম্বর(শুক্রবার) নাগড়া শিববাড়ি মন্দির,সাতপাই কালিবাড়ি মন্দির ও উকিলপাড়াস্থ সৎসঙ্গ আশ্রম পরিদর্শনে যান ও আলো প্রজ্বলন করে ঘুরে ফিরে দেখেন।

এ ছাড়া সনাতন সমাজ বাংলাদেশ'র সমন্বয়কারী নিরঞ্জন বর্মন এর সহধর্মিণী স্বর্গীয়া ইলা রানী বর্মনের সাংবাৎসরিক শ্রাদ্ধানুষ্ঠানে শ্রীমদ ভাগবত পাঠ ও শান্তি প্রার্থনায়ও অংশগ্রহন করেন তিনি।

অনুষ্ঠানে সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে ,"জাত-পাত ভেদাভেদ ভুলে যাওয়ার  আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন,সনাতন বৈদিক রীতি অনুযায়ী সর্ববর্ণের মানুষকে একই এবং অভিন্নভাবে অশৌচ ও দশাহ পালন করতে হবে।এ বিষয়ে সকলের ঐক্যমত্য দরকার"। সমাজে বিরাজমান কুসংস্কার দূরীকরণে বাংলাদেশ হিন্দু সমাজ সংস্কার সমিতি'র প্রচেষ্টার কথাও স্মরণ করিয়ে দেন এ সময়।অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে জনতা ব্যাংকের অবসরপ্রাপ্ত উপ পরিচালক বাবু রাখাল সরকার,শিক্ষাবিদ খগেন্দ্র তালুকদার,রুপালি ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের ব্যবস্থাপক সুনীল সাহা,বিশিষ্ট ভাগবত পাঠক জীবন চন্দ্র দাস প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।


সন্ধ্যায় নেত্রকোনা প্রধান মহাশ্মশান পরিদর্শনে গিয়ে  অসুস্থ তত্ত্বাবধায়ক মহাদেব দাসের চিকিৎসার খোঁজ খবর নেন ও আর্থিক সাহায্য প্রদান করেন।শবদেহ পরিবহনের জন্য পৌরসভা কর্তৃপক্ষের কোন নিজস্ব গাড়ি না থাকায় বিস্ময় প্রকাশ করেন তিনি।এছাড়া সম্প্রতি লক্ষীগঞ্জ ইউনিয়নের বাইশধার গ্রামে কালি মন্দিরের প্রতিমা ভাংচুরের ঘটনায় মাস পেরিয়ে গেলেও পুলিশ কোন কিনারা করতে না পারায় হতাশা ব্যক্ত করেন!