টাঙ্গাইলের ঘাটাইলে পুত্রবধুর হাতে শাশুড়ী খুনের অভিযোগ

 ৩০ জুন ২০১৮ শনিবার  ভিডিওসহ দেখতে ক্লিক করুন

হাফিজুর রহমান.টাঙ্গাইল জেলা প্রতিনিধিঃ

টাঙ্গাইলের কালিহাতীতে কলসীর আঘাতে পত্রবধূর হাতে শাশুড়ী খুনের পর এবার ঘাটাইল উপজেলার কামালপুর গ্রামে পুত্রবধুর হাতে শাশুড়ীকে খুনের অভিযোগ ওঠেছে। শুক্রবার সন্ধ্যায় এ ঘটনা ঘটে। নিহতের ছেলে বাদল মিয়ার অভিযোগ বাড়িতে কোন লোকজন না থাকায় রোজিনার বাবা মফিজ শিকদার (৬০), চাচা তায়েজ শিকদার (৫৮), মামা দেলোয়ার (৬০) ও সিদ্দিক (৫৫), ভাই মজিদ শিকদার (৩৩), মিলন শিকদার (১৮), বোন বিউটি (২৪) ও মা জাবেদা (৫০) মিলে শুকুরজানকে জোরপূর্বক বিষ খাইয়ে হত্যা করেছে। জানা যায়, উপজেলার সাগরদিঘী গ্রামের গোলাম মোস্তফার ছেলে মিজানুর রহমান (৩৫) পাশর্^বর্তী কামালপুর গ্রামের মফিজ শিকদারের মেয়ে রোজিনা আক্তারের সাথে দীর্ঘ ১৫ বছর আগে বিয়ে হয়। বিয়ের পর রোজিনা তার স্বামীকে ফুসলিয়ে তার বাবার বাড়ীর পাশে কামালপুরে ৫ বিঘা জমির ওপরে একটি পোল্ট্রি ফার্ম তৈরি করে। ওই ফার্মের উপার্জনে রোজিনার পরিবার ঈর্ষান্বিত হয়ে বিভিন্ন সময় ফার্মটি তার বাবা ও ভাইদের নিয়ন্ত্রণে নেয়ার চেষ্টা করে। কিন্তু রোজিনার শ^শুড় গোলাম মোস্তফা ও শাশুড়ি শুকুরজান কখনও ওই প্রস্তাব মেনে নেয়নি। একারণে ক্ষুদ্ধ হয়ে রোজিনার পরিবার বিভিন্ন সময়ে স্বামী মিজান ও শাশুড়ি শুকুরজানকে প্রায়ই মারধর করত। শুক্রবার বিকেলে রোজিনা তার পরিবার পরিজন নিয়ে পরিকল্পিতভাবে বিষ খাইয়ে শাশুড়িকে হত্যা করে বলে নিহতের পরিবার দাবী করেন। এ ব্যাপারে ঘাটাইল থানার অফিসার ইনচার্জ মাকসুদুল আলম সাংবাদিকদের জানান, বিষ খেয়ে মৃত্যুর সংবাদ শুনেছি। এ ঘটনায় সখিপুর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি হয়েছে। নিহতের লাখ ময়না তদন্তের জন্য টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত থানায় কোন মামলা হয়নি বলে জানান তিনি।