অপু বিশ্বাসের খোঁজে সহশিল্পীরা

 ৪ নভেম্বর ২০১৬, শুক্রবার   সহ দেখতে ক্লিক করুন

অপু বিশ্বাস

সাত মাস ধরে খোঁজ নেই চিত্রনায়িকা অপু বিশ্বাসের। গুলশানের ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দিয়েছেন তিনি। মুঠোফোনগুলোও বন্ধ। যে ঠিকানায় নিয়মিত তাঁর চিঠিপত্র যেত, সেই বাসায়ও তাঁকে এখন আর খুঁজে পাচ্ছে না। বাংলাদেশি চলচ্চিত্রের উধাও নায়িকার খোঁজে নামছে এবার চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতি। গত সোমবার  আলাপে তেমনটাই জানালেন এই সমিতির সাধারণ সম্পাদক অমিত হাসান।
অমিত হাসান বলেন, ‘আমরা সবাই জানি, শাকিব খানই অপুর অঘোষিত অভিভাবক। ওর মাধ্যমেই সবাই যোগাযোগ করত। সাত দিন আগে শাকিবকে যখন অপুর ব্যাপারে জিজ্ঞেস করেছি, তখন সে আমাকে বলেছে, অপুর মায়ের অপারেশন, এখন ভারতে আছে। এ নিয়ে অপু নাকি খুব চিন্তিত। অপারেশন শেষ হলেই দুই-এক মাসের মধ্যে সে চলে আসবে।’
অপু বিশ্বাসের উধাও হওয়ার কারণে পাঁচটি ছবির কাজ শেষ করতে পারছেন না নির্মাতারা। বিপদে পড়েছেন এসব ছবির প্রযোজকেরাও। অপু বিশ্বাস অভিনীত এসব ছবির নায়ক শাকিব খান। মা ছবিতে অপুর বিপরীতে বুবলির কাজ করার কথা থাকলেও রাজনীতি, পাঙ্কু জামাই, সালাম মালয়েশিয়া, মাই ডার্লিং, লাভ ২০১৬—এসব ছবির ব্যাপারে এখনো কোনো সিদ্ধান্ত নেওয়া সম্ভব হয়নি।
অভিনয়জীবনে অপু বিশ্বাস ৭০টির মতো ছবিতে অভিনয় করেছেন। বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির বর্তমান সভাপতি চিত্রনায়ক শাকিব খান বললেন, ‘আমার সাথে বহু মাস ধরে অপুর যোগাযোগ নেই। কেউ যদি নিজে থেকে কাউকে খোঁজ না দেয়, তাহলে তার খোঁজ কীভাবে নেব!’ অপু বিশ্বাসের এমন উধাও হয়ে যাওয়ার ব্যাপারে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশি সিনেমায় এর আগে অনেকে উধাও ছিলেন। চমক নিয়েও ফিরেছেন তাঁরা। উদাহরণ হিসেবে শাবনূরের কথা তো বলাই যায়। অপুর ক্ষেত্রেও হয়তো তেমনটাই ঘটতে যাচ্ছে।’
কিন্তু সমিতির সাধারণ সম্পাদক অমিত হাসানের কথা মনে করিয়ে দিতেই শাকিব বললেন, ‘শিল্পী সমিতি তো আর শিল্পীদের ব্যক্তিগত বিষয় দেখবে না। এ ব্যাপারে হস্তক্ষেপ করাটা অপরাধ।’
চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতির মহাসচিব মুশফিকুর রহমান গুলজার বলেন, ‘অপু বিশ্বাসের কারণে পরিচালক ও প্রযোজকেরা ঝামেলায় পড়েছেন, সেটা তো আমাদের জানাননি। তবে না বলে উধাও হয়ে থাকাটা অবশ্যই অন্যায়। যত দূর শুনেছি, কলকাতায় আছে সে।’
চলচ্চিত্র প্রযোজক সমিতির যুগ্ম আহ্বায়ক খোরশেদ আলম খসরু বলেন, ‘প্রযোজক যাঁরা ফেঁসে গেছেন, তাঁরা কেউ আনুষ্ঠানিকভাবে কোনো অভিযোগ করেননি। মৌখিকভাবে অনেকে বলছেন। লিখিতভাবে কেউ বললে, আমরা শিল্পী সমিতির সাহায্য নিয়ে তারপর পদক্ষেপ নেব।’