‘অবরুদ্ধ’ কাদের মির্জা যা বললেন ফেসবুক স্ট্যাটাসে

বসুরহাট পৌরসভায় অবরুদ্ধ করে রাখা হয়েছে দাবি করেছেন মেয়র আবদুল কাদের মির্জা। তার অনুসারীদের হাতে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নুরনবী চৌধুরী গুলিবিদ্ধ ও আরেক আওয়ামী লীগ নেতা হামলার শিকার হওয়ার ৮ ঘণ্টা পর নিজের এক ফেসবুক স্ট্যাটাসে এমনটাই জানানো হয়েছে।

সোমবার ইফতার পরবর্তী সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে ওই স্ট্যাটাসে কাদের মির্জা অভিযোগ করেন, ‘এডিশনাল এসপি শামীম এবং ওসির নির্দেশে তাণ্ডব চলছে বসুরহাট পৌরসভায়।’ নিচে হুবহু কাদের মির্জার স্ট্যাটাসটি তুলে ধরা হলো :

আমার পৌরসভার অফিস সহকারীদের গ্রেফতার করে নিয়ে যাচ্ছে। আমার বাড়ি থেকে ইফতার পর্যন্ত আনতে দিচ্ছে না। তারা আমার ছেলেকে মারল একটি ভিডিও ভাইরাল হলো। কিন্তু কোনো আসামি গ্রেফতার হয়নি। উল্টো আমার লোকদের গ্রেফতার করছে তারা। এই অবিচারের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই।

 

আবদুল কাদের মির্জা, মেয়র বসুরহাট পৌরসভা।

জানা যায়, এর আগে সোমবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে বসুরহাট পৌরসভার ৩ নম্বর ওয়ার্ডে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নুরনবী চৌধুরীকে মির্জা কাদেরের অনুসারীরা লোহার রড দিয়ে পিটিয়ে পা ভেঙে দেয় এবং দুই পায়ে গুলি করে।

পরে দুপুর ১২টার দিকে বসুরহাট পৌরসভার ৭ নম্বর ওয়ার্ডে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংস্কৃতিক সম্পাদক নুরুজ্জামানের ওপর হামলা চালায় মির্জা কাদেরের অনুসারীরা। এ ঘটনায় জড়িত অভিযোগে বিকেলে ৪ জনকে আটক করে পুলিশ।

 

আরও পড়ুন