আজ জাতীয় ফুটবল দলের অনুশীলন ক্যাম্প

আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে বিশ্বকাপ বাছাইয়ের দ্বিতীয় পর্বের ম্যাচের ঠিক ১৮ দিন আগে প্রস্তুতি শুরু করছেন জাতীয় ফুটবল দলের ব্রিটিশ কোচ জেমি ডে। আজ শুক্রবার (২৩ আগস্ট) শুরু হবে ফুটবলারদের আবাসিক ক্যাম্প।

২৬ সদস্যের দল নিয়ে দুই সপ্তাহের অনুশীলন ক্যাম্প চলবে। প্রথম দিন রিপোর্টিং করবে ফুটবলাররা। বাংলাদেশের হেড কোচ জেমি ডে জানালেন, আফগানরা শক্ত প্রতিপক্ষ হলেও ম্যাচ জয়ের সামর্থ্য রাখে বাংলাদেশ। আর ক্যাম্পে নিবিড় পর্যবেক্ষণ শেষে সেরা খেলোয়াড়রাই চূড়ান্ত দলে জায়গা পাবে বলেও জানান কোচ।

বলা হচ্ছে- বড় মিশনের প্রথম ধাপ। ২০২২ কাতার বিশ্বকাপের দ্বিতীয় রাউন্ডের প্রথম পর্বে আগামী ১০ সেপ্টেম্বর আফগানিস্তানের বিপক্ষে মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ। এ জন্য শুরু হচ্ছে ২৬ সদস্যের প্রস্তুতি ক্যাম্প। এরইমধ্যে প্রস্তুতি ক্যাম্পের জন্য ভেন্যু চূড়ান্ত হয়ে গেছে। বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামেই দুই সপ্তাহের ট্রেনিং করবে বাংলাদেশ ফুটবল দল।

অবশ্য অনুশীলন ক্যাম্প শুরু করার আগেই হেড কোচ জেমি ডে জানালেন তার পূর্ব প্রস্তুতির কথা।

টিম বাংলাদেশের হেড কোচ বলেন, দীর্ঘ বিরতি দিয়ে এবারের ক্যাম্পটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। খেলোয়াড়রা যতো তাড়াতাড়ি ক্যাম্পে মনোনিবেশ করবে, তত দ্রুত ম্যাচে ফিরতে পারবে। দু’সপ্তাহের ক্যাম্পের প্রথম সপ্তাহটা আমরা গা গরম আর ফিটনেস নিয়ে কাজ করবো। এরপরের সপ্তাহটাতেই আমরা আফগানিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচকে সামনে রেখে ট্রেনিং করবো। টেকনিক্যাল বিষয় গুলোতে মনোযোগী হবো। দুটি ধাপই সমান গুরুত্বপূর্ণ মনে করেন জেমি ডে।

কাতার বিশ্বকাপের পাশাপাশি ২০২৩ এশিয়ান কাপের বাছাইও হবে এ রাউন্ডে। প্রস্তুতি ক্যাম্পেই সেরা একাদশ বাছাইয়ে নিবিড় পর্যবেক্ষণে থাকবে খেলোয়াড়রা। আর তাজিকিস্তান শীত প্রধান দেশ। খেলা হবে আস্ট্রে টার্ফে। তাই আফগানদের বিপক্ষে প্রস্তুতিটা জোরালো করার ইঙ্গিত ইংলিশ কোচের।

জেমি ডে বলেন, আফগানিস্তান ভালো দল। ওদের বিপক্ষে এর আগে আমরা ৪-৫টা ম্যাচ খেলেছি। ম্যাচ ভেন্যু তাজিকিস্তানে। সেখানকার মাঠ গুলো ঘাস না থাকায়, কৃত্রিম অ্যাস্ট্রে টার্ফে খেলা হবে। আমরা ভিন্ন আবহাওয়ায় খেলব। খাপ খাইয়ে নিতে হাতে একসপ্তাহের বেশি সময় পাব আমরা। বিষয়টা পরিষ্কার; ভালো খেললে জিতব, নইলে না।

আগামী ৩১ আগস্ট পর্যন্ত চলবে ক্যাম্প। এরপর ১ সেপ্টেম্বর তাজিকিস্তানের উদ্দেশ্যে দেশ ছাড়বে বাংলাদেশ ফুটবল দল।

আরও পড়ুন