আত্মসমর্পণ করে জামিন পেলেন বিএনপির শীর্ষ ৮ নেতা

নাশকতা ও পুলিশের কাজে বাধার অভিযোগে রাজধানীর হাতিরঝিল থানার মামলায় বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ দলটির শীর্ষ আট নেতার জামিন মঞ্জুর করেছেন আদালত।

আজ সোমবার (২ সেপ্টেম্বর) ঢাকা মহানগর হাকিম শরাফুজ্জামান আনসারী পাঁচ হাজার টাকা মুচলেকায় তাদের জামিন মঞ্জুর করেন।

জামিন পাওয়া অন্যান্য নেতারা হলেন- বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, গয়েস্বর চন্দ্র রায়, নজরুল ইসলাম খান, আবদুল মঈন খান, মির্জা আব্বাস, আমীর খসরু মাহমদ ও সাংগঠনিক সম্পাদক রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু।

শুনানিতে আইনজীবীরা বলেন, ‘এটি একটি গায়েবি মামলা। সেদিন এজাহারে বর্ণিত কোনো ঘটনাই ঘটেনি। আসামিরা হাইকোর্ট থেকে জামিন নিয়েছেন। জামিনের অপব্যবহার তারা করেননি। আর হাইকোর্ট তাদের জামিনের বিষয়টি বিবেচনা করতে বলেছেন। আমরা আসামিদের জামিনের প্রার্থনা করছি।’

গত বছরের ১ অক্টোবর হাতিরঝিল থানায় বিএনপির সিনিয়র নেতাসহ ৫৫ জনের বিরুদ্ধে সরকারি কাজে বাধাদান ও নাশকতার অভিযোগে মামলা করে পুলিশ। পরে সেই মামলায় হাইকোর্ট থেকে জামিন পান বিএনপির সাত নেতা। মামলাটির পুলিশ প্রতিবেদন না দেয়া পর্যন্ত তাদের জামিন মঞ্জুর করেন আদালত।

মামলার এজাহারে অভিযোগ করা হয়, রাজধানীর মগবাজার রেলগেট এলাকায় গত বছরের ৩০ সেপ্টেম্বর অস্ত্রশস্ত্রে সজ্জিত হয়ে পুলিশের কাজে বাধা দিয়েছেন, পুলিশকে আক্রমণ করেছেন, যানবাহন ভাঙচুর ও ক্ষতিসাধন করেছেন। জনমনে আতঙ্ক সৃষ্টির জন্য ককটেলের বিস্ফোরণ ঘটিয়েছেন। ঘটনাস্থল থেকে বাঁশের লাঠি, পেট্রলবোমা, বিস্ফোরিত ককটেলের অংশ, কাচ ও ইটের টুকরা উদ্ধার করা হয়।

প্রসঙ্গত, এর আগে মির্জা ফখরুল ও দলের ৫৫ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে হাতিরঝিল থানা পুলিশ।

আরও পড়ুন