আমাকে গণধর্ষণ করার খবর একেবারেই মিথ্যা: বিজেপির কর্মী

পশ্চিমবঙ্গে বিধানসভার ভোটের ফল বের হতেই রাজ্যজুড়ে সহিংসার খবর। এই পরিপ্রেক্ষিতে দুই বিজেপি নারী কর্মীকে গণধর্ষণের অভিযোগ তুলেছিল বিজেপি, যা নিয়ে উত্তেজনা দেখা দেয়।

যদিও রাজ্য পুলিশ একে ভুয়া খবর বলে আগেই জানিয়েছিল। কয়েকজন বিজেপি নেতা সোশ্যাল মিডিয়ায় দাবি করেন, বীরভূমের নানুরে তাদের এক নারী কর্মী গণধর্ষিণের শিকার হয়েছেন। এবার সেই নারীকেই পাশে বসিয়ে সংবাদ সম্মেলন করলেন তৃণমূলের বীরভূম জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল। তার পাশে বসে বিজেপি কর্মীও জানালেন এমন কোনো ঘটনাই ঘটেনি।

নানুরে সাওতা গ্রামের বাসিন্দা অপর্ণা রায় এবারের ভোটে বিজেপির পোলিং এজেন্ট ছিলেন। কিন্তু নির্বাচনের পর থেকেই তাকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না বলে অভিযোগ করেন বিজেপি নেতৃত্ব। ঘটনাক্রমে মঙ্গলবার সকাল থেকেই টুইটার ও ফেসবুকে বিজেপি নেতারা দাবি করতে শুরু করেন যে, ওই নারীকে গণধর্ষণ করা হয়েছে। আঙুল তোলা হয় তৃণমূলের দিকে। এরপরই আসরে নামেন অনুব্রত। বোলপুরের দলীয় কার্যালয়ে সেই বিজেপি কর্মীকে নিয়ে সংবাদ সম্মেলনের ডাক দেন তিনি।

 

কয়েক দিন আগে করা ওই সংবাদ সম্মেলনে অপর্ণা রায় বলেন, ‘আমি একজন বিজেপি কর্মী। আমার বাড়ির সামনে হইহুল্লোড় হচ্ছিল বলে ভয়ে বাপের বাড়ি চলে গিয়েছিলাম। এর মধ্যে কে বা কারা সোশ্যাল মাধ্যমে রটিয়েছে যে, আমাকে গণধর্ষণ করা হয়েছে। একথা একেবারেই মিথ্যা। আমার সঙ্গে এমন কোনো ঘটনা ঘটেনি।’

স্বভাবসিদ্ধ ভঙ্গিতে অনুব্রত বলেন, ‘এভাবে ফেক নিউজ রটাচ্ছে বিজেপি আইটি সেল। একজন মেয়েকে এভাবে বদনাম করা একেবারে ঠিক নয়। উনি পুলিশের দ্বারস্থ হয়েছেন।’ পাশাপাশি ভুয়া খবর ছড়ানোর জন্য বিজেপির বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার হুঁশিয়ারি দেন তৃণমূল নেতা।

সূত্র: আনন্দবাজার, জি নিউজ

 

আরও পড়ুন