উদ্বোধনের দিনই পদ্মা সেতুতে চলবে ট্রেন : রেলমন্ত্রী

রেলপথমন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজন জানিয়েছেন, বহুল কাঙ্ক্ষিত স্বপ্নের পদ্মা সেতুর উদ্বোধনের দিনই এর ওপর দিয়ে চলবে ট্রেন। এ লক্ষ্যে পুরোদমে রেললাইনের কাজ চলছে। গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে রাজধানীর রেলভবন মিলনায়তনে সদ্য ভারত ও চীন সফর নিয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, ‘আমরা রেলকে আধুনিক ও যুগোপযোগী করতে কাজ করে যাচ্ছি। চীনের সহযোগিতায় ও ভারতের অর্থায়নে আমাদের অনেক প্রকল্প চালু আছে। সিঙ্গেল লাইনগুলোকে ডাবল লাইনে আনার কাজ চলছে, নতুন নতুন রুটে রেল চলাচলের কাজ শুরু হয়েছে।’

মন্ত্রী বলেন, ‘পদ্মা সেতুর কাজ চলছে পুরোদমে। এরই মধ্যে সেতুর ৭৩ শতাংশ কাজ শেষ হয়েছে। আমাদের কাজও অব্যাহত আছে। স্বপ্নের এই সেতু উদ্বোধনের দিনেই এর ওপর দিয়ে ট্রেন চলাচল করবে। এ লক্ষ্যে ভাঙ্গা-মাওয়া পর্যন্ত ৪২ কিলোমিটার রেললাইনের কাজ চলছে পুরোদমে। প্রথম দিকে ভাঙ্গা থেকে মাওয়া পর্যন্ত এই ট্রেন চলবে। তবে এই সেতুর ওপর দিয়ে ঢাকা থেকে যশোর পর্যন্ত (১৭২ কিলোমিটার) ট্রেন চলাচল করতে আরো সময় লাগবে। সেটা করতে আমাদের প্রকল্পের মেয়াদ (২০২৪ সাল) পর্যন্ত সময়ের প্রয়োজন পড়বে।’

নূরুল ইসলাম সুজন ভারত ও চীন সফর নিয়ে তার অভিজ্ঞতা ব্যক্ত করে বলেন, ‘আমরা ভারতে ট্রেনের আধুনিকতা সরেজমিনে দেখে এসেছি। আমাদের দেশে চলাচলরত ২৬৩টি ট্রেনের ৬৮ শতাংশ মেয়াদ আছে। আমরা ভারতের কাছে কিছু ইঞ্জিন কেনার প্রস্তাব দিলে তারা বন্ধুত্বের সৌজন্যে ২০টি ইঞ্জিন উপহার দেবে, যেগুলো তিন বছর পর ফেরত দেব। পরে সেখান থেকে আমরা ইঞ্জিন কিনব, সেটা হয়তো ২০২৩ বা ২০২৪ সালে আসতে পারে। আমরা চীনের দ্রুতগতির ট্রেন দেখেছি, আমাদের দেশে সেগুলো নিয়ে স্টাডি চলবে। বন্ধু রাষ্ট্র দুটির অভিজ্ঞতা ট্রেনে কীভাবে কাজে লাগানো যায়, সেটা নিয়ে কাজ করা হবে।’

রাজধানীর শাহজাহানপুরে রেল কলোনির উচ্ছেদ নিয়ে রেলপথমন্ত্রী বলেন, শাহজাহানপুর রেল কলোনিতে হাজারো অবৈধ স্থাপনা আছে, সেগুলো উচ্ছেদে অভিযান চলছে। সব দিক বিবেচনায় নিয়ে সব অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের কাজ চলবে।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন রেলপথ মন্ত্রণালয়ের সচিব মোফাজ্জেল হোসেন, রেলওয়ের মহাপরিচালক শামসুজ্জামানসহ মন্ত্রণালয় ও রেলের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

আরও পড়ুন