একাধিক নারীর সর্বনাশ করল জ্যোতিষী

যিনি জ্যোতিষশাস্ত্রের চর্চা করেন, তিনি জ্যোতিষী নামেই পরিচিত। তবে সব জ্যোতিষীই একই রকম নয়। এদের মধ্যে আছে ভাল ও মন্দ দুই ধরনের জ্যোতিষী-ই সমাজে দেখা যায়। ভেঙ্কট কৃষ্ণাচারিয়া নামে এক ব্যক্তিও জ্যোতিষী হিসেবে বেশ নাম ডাক অর্জন করেছেন। তিনি নাকি হাত দেখে সবার অতীত, বর্তমান ও ভবিষ্যৎ বলে দিতে পারেন। এখানেই শেষ নয়, তার কাছে কোনো নারী হাত দেখাতে এলে তিনি বলে বলে দেন আগের জন্মের কথাও। একই কথা তিনি প্রত্যেক নারীকেই বলেন।

প্রতিটি নারীকে এই জ্যোতিষী বলেন, ‘আমি আগের জন্মে তোমার স্বামী ছিলাম।’ এই কথা বলে একাধিক নারীর সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক গড়ার অভিযোগ উঠেছে ভণ্ড এই জ্যোতিষীর বিরুদ্ধে।

ভারতীয় গণমাধ্যমের খবর অনুযায়ী জানা যায়, প্রথমে এই জ্যোতিষী নানা ছল-চাতুরি করে নারীদের মগজ ধোলাই করতেন। এরপর প্রেমের জালে ফাঁসিয়ে ওইসব নারীদের সর্বনাশ করতেন তিনি।

খবরে বলা হয়, ভারতের বেঙ্গালুরু থেকে এই প্রতারক জ্যোতিষীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ওই জ্যোতিষীর নাম ভেঙ্কট কৃষ্ণাচারিয়া। তিনি শ্রীনিবাসনগরের বাসিন্দা।

গত বুধবার প্রতারণার সময় নারীদের একটি সংগঠন তাকে হাতেনাতে আটক করে। তারপর শুরু হয় গণধোলাই। খবর পেয়ে সেখানে পুলিশ উপস্থিত হলে এক নারী তাকে পুলিশের হাতে তুলে দেন।

সেখানে আরও বলা হয়, ওই দিন একটি ঘরে এক নারীর মগজধোলাই করছিলেন কৃষ্ণাচারিয়া। এমনকি ওই নারীকে প্রেমের জালে ফাঁসিয়ে ওই নারীর নামে একটি ঋণও নেন ভেঙ্কট কৃষ্ণাচারিয়া নামের ওই ভণ্ড জ্যোতিষী।

আরও পড়ুন