এবার ভেঙেই যাচ্ছে দেবর-ভাবির জাতীয় পার্টি

গতকাল মঙ্গলবার রাতে সংসদে বিরোধীদলের নেতা হিসেবে নিজের নাম প্র’স্তাব করে চিঠি দিয়েছেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান জিএম কাদের। গত রাতেই এটা নিয়ে তীব্র প্রতি’ক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন জাতীয় পার্টির প্রয়া’ত চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের স্ত্রী রওশন এরশাদ।
রওশন এরশাদ বর্তমানে বিরোধীদলীয় উপনেতা। জিএম কাদের তাকে না জানিয়েই চিঠি দিয়েছেন বলে তিনি অভি’যোগ করেছেন। এ নিয়ে তিনি ক্ষু’ব্ধ প্রতি’ক্রিয়া ব্য’ক্ত করেছেন।

জাতীয় পার্টির ঘনিষ্ঠ সূত্রগুলো বলছে, সংসদ সদস্যদের মধ্যে রওশন এরশাদেরই প্রাধান্য বেশি। তবে রওশন এরশাদের প্রাধান্য থাকুক বা না থাকুক তার সমর্থক গোষ্ঠী এটা মেনে নেবে না। ফলে সংসদে জাতীয় পার্টি স্পষ্টপভাবেই দ্বি’ধাবিভক্ত হয়ে পড়লো। এই দ্বি’ধাবিভক্তির ঢে’উ দলের মধ্যে এসে পড়বে বলে রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা মনে করছেন।
জাতীয় পার্টির একাধিক শীর্ষ নেতা বলেছেন যে, জিএম কাদেরের চিঠির মধ্য দিয়ে জাতীয় পার্টির ভা’ঙন প্রক্রি’য়া শুরু হলো। এখন জাতীয় পার্টির ভা’ঙন একটা সময়ের ব্যাপার মাত্র।

জি এম কাদের বিরোধীদলীয় নেতা, স্পিকারকে জাপার চিঠি

জি এম কাদেরকে জাতীয় সংসদের বিরোধীদলীয় নেতা করে সংসদে চিঠি দিয়েছে জাতীয় পার্টি (জাপা)। মঙ্গলবার (৩ সেপ্টেম্বর) বিকালে দলের প্রেসিডিয়াম সদস্য কাজী ফিরোজ রশীদের নেতৃত্বে পাঁচ জন সংসদ সদস্য স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর দপ্তরে গিয়ে এ চিঠি দেন। জাতীয় পার্টির ১৫ জন সংসদ সদস্যের সম্মতিপত্রও চিঠিতে আলাদা আলাদা করে সংযুক্ত করে দেয়া হয়।

এসময় জাতীয় পার্টির সংসদ সদস্য শামীম হায়দার পাটোয়ারী, আদেলুর রহমান, নাজমা আক্তার, শরিফুল ইসলাম ও জিন্না প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। স্পিকার দেশের বাইরে থাকায় চিঠিটি গ্রহণ করেন স্পিকারের দপ্তরের কর্মকর্তারা। এছাড়া সংসদ সচিবের কাছেও চিঠির একটি কপি দেয়া হয়।
জানা গেছে, সংসদে বিরোধীদলীয় নেতা করা হয়েছে জিএম কাদেরকে আর উপনেতা বেগম রওশন এরশাদ।

প্রসঙ্গত, জাতীয় পার্টির প্রেসিডেন্ট হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের মৃ’ত্যুর পরই কে হবেন দলের প্রেসিডেন্ট ও সংসদে বিরোধীদলীয় নেতা- তা নিয়ে শুরু হয় রশি টানাটানি। দলের একটি পক্ষ এরইমধ্যে জিএম কাদেরকে দলের প্রেসিডেন্টের পদ দিয়েছেন। এতে না’খোশ রওশন ও তার অনুসারীরা। এরপর শুরু হয় সংসদে বিরোধীদলীয় নেতা নির্বাচন নিয়ে মতবি’রোধ। এ মতবিরো’ধের মধ্যেই জিএম কাদেরের পক্ষে বেশিরভাগ এমপির স্বাক্ষর নিয়ে সংসদে চিঠি জমা দেয়া হল। জাতীয় পার্টির মোট সংসদ সদস্য সংখ্যা ২২ জন। এর মধ্যে আজ জমা হওয়া চিঠিতে আলাদা আলাদা স্বাক্ষর রয়েছে ১৫ জনের।

আরও পড়ুন