কাশ্মীরে ৩৭০ ধারা বিলোপ ভারতের নিজস্ব বিষয়, মার্কিন স্বরাষ্ট্র দফতর

ভারত অধিকৃত জম্মু-কাশ্মীর সমস্যা সমাধানের জন্য মধ্যস্থতা করতে চেয়েছিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। কিন্তু ৩৭০ ধারা বিলোপের পর এখন তার স্বারাষ্ট্র দফতর থেকেই বলছে, কাশ্মীর নিয়ে ভারত যা করেছে তা একেবারেই তার নিজস্ব বিষয়। তবে জম্মু-কাশ্মীরের গোটা বিষয়টির ওপর নজর রাখছে মার্কিন যু্ক্তরাষ্ট্র।

 

সোমবার (৫ আগস্ট) ভারত অধিকৃত জম্মু-কাশ্মীরের উপরে মর্যাদা বিলোপের ঘোষণা দেওয়ার পরই মার্কিন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের তরফে ওই বিবৃতি দিয়েছেন দফতরের মুখপাত্র মরগান ওরতেগাস।

ওই বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘জম্মু ও কাশ্মীরে যা হচ্ছে তা নজরে রাখছি আমরা। জম্মু ও কাশ্মীরকে ভাগ করা ও তাদের সাংবিধানিক অধিকার বিলোপ করার বিষয়টি নজরে রয়েছে।’

মার্কিন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের মুখপাত্র আরও বলেছেন, কাশ্মীরে যেভাবে বিভিন্ন লোকজনকে আটক করা হচ্ছে তা গুরুতর বিষয়। এই ইস্যুতে সব পক্ষেরই শান্ত থাকা উচিত।

সোমবার (৫ আগস্ট) কেন্দ্র ৩৭০ ধারা বিলোপ করার পর এনিয়ে মায়াকান্না শুরু করে দিয়েছে পাকিস্তান। ইসামাবাদে ভারতের হাই কমিশনারকে ডেকে পাঠিয়ে এনিয়ে তীব্র প্রতিবাদ করা হয়েছে। তার পরেই ওই মন্তব্য করল মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র।

এদিকে, ৩৭০ ধারা বিলোপ করে সোমবার কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র্মন্ত্রী সাফ জানিযেছেন, ৩৭০ ধারাই হল সন্ত্রাসবাদের প্রধান কারণ। কাশ্মীরের ভারতভূক্তির সঙ্গে ৩৭০ ধারার কোনও সম্পর্ক নেই। কাশ্মীরের রাজা হরি সিং ভারত সরকারের সঙ্গে চুক্তি করে ভারতে যোগ দেন ১৯৪৭ সালের ২৭ অক্টোবর। ৩৭০ ধারা এসেছে ১৯৫৪ সালে। বিরোধী দলনেতা গুলাম নবি আজাদ বলছেন ৩৭০ ধারার মাধ্যমে কাশ্মীর ভারতের সঙ্গে যোগ দিয়েছে। এটি সত্যি নয়।

আরও পড়ুন